1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বর্ণভেদ সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজছে ব্রিটেন

ভারতের বর্ণ বৈষম্য বা জাতিভেদ প্রথা নিয়ে আইন তৈরি করার জন্য নড়েচড়ে বসেছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ৷ এ বিষয়ে আইন করার চিন্তাভাবনা হলেও ২০১৫ সালের আগে তা সম্ভব নয়৷ কিছু ব্রিটিশ ভারতীয় অবশ্য মনে করেন, এমন আইনের দরকারই নেই৷

ভারতে জাতিভেদ প্রথা এখনও বহাল৷ কর্ম ও শিক্ষাক্ষেত্র থেকে শুরু করে সমাজের প্রতিটি স্তরেই এই ভেদাভেদ লক্ষ্যণীয়৷ কিন্তু দেশের বাইরেও এই ভেদাভেদ থেমে নেই৷ ব্রিটেনের রাম ধারিভালের কাহিনিই তার অন্যতম উদাহরণ৷ ব্রিটেনে আইটি পেশায় কাজ করতে গিয়ে হয়রানির মুখোমুখি হতে হয়েছে তাঁকে৷ অফিসের একটি বৈঠকে নতুন একজন ভারতীয় সহকর্মী তাঁকে তাঁর জাতি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করেন এবং তিনি দলিত হওয়ায় তথাকথিত ‘অচ্ছুত' বলে উল্লেখ করেন৷ তখন নিজেকে ভীষণ ছোট মনে হয়েছিল ধারিভালের৷

তাঁর মতো অনেকেই এ অভিজ্ঞতার শিকার৷ ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ সম্প্রদায়ের মধ্যে এই ভেদাভেদ বেড়েই চলেছে৷ এ কারণে ব্রিটেনের আইন প্রণেতারা এ বিষয়ে শক্ত পদক্ষেপ নেয়ার কথা ভাবছেন৷ এ বছরই যুক্তরাজ্যের ‘অ্যান্টি-ডিস্ক্রিমিনেশন ইকুয়ালিটি অ্যাক্ট' বদলানোর উদ্যোগ নিয়েছেন তাঁরা৷ তবে সমালোচকরা বলছেন, এর ফলে জাতিভেদ আরো প্রকট হবে এবং সমস্যাটা ছোট থেকে বড় হয়ে উঠবে৷

রাম ধারিভাল ডয়চে ভেলেকে বলেছেন, উচ্চ জাতের ব্রিটিশ ভারতীয়রা নিজেদের উঁচু জাতের দোহাই দিয়ে বেশ গর্ব বোধ করেন৷ যুক্তরাজ্যের হিন্দু ফোরামের সদস্য ভারতী টেইলর জানান, এই আইনের ফলে আরো বেশি মানুষ ক্ষতির সম্মুখীন হবেন৷ এর ফলে ভেদাভেদ আরো বেড়ে যাবে এবং পুরোনো ক্ষতকে আরো বাড়িয়ে দেবে এ আইন৷

জাতিভেদ সংক্রান্ত অন্তত ২৪টি ঘটনা নিয়ে রিপোর্ট তৈরি করেছে আইন প্রণেতা হিলারি মেটকাফ ও তাঁর এক সহকর্মী৷ সেসব রিপোর্টে তুলে ধরা হয়েছে জাতিভেদের কারণে কতজন ভারতীয় চাকরিচ্যুত হয়েছেন বা কত শিশু স্কুল ছাড়তে বাধ্য হয়েছে৷

রিপোর্টে তিনি লিখেছেন, নীচু জাতের মানুষদের শক্তিশালী করতে এবং তাদের অধিকারের জন্য ‘অ্যান্টি কাস্ট ডিস্ক্রিমিনেশন' আইন নিষিদ্ধ করা প্রয়োজন৷ তবে ২০১৫ সালের আগে সেটা করা সম্ভব নয় বলে জানান মেটকাফ৷

ভারতী টেইলরের কথায় অবশ্য, এই আইন যে আসলে দরকার নেই, সেটা প্রমাণের জন্য যথেষ্ট তথ্য-প্রমাণ জোগাড় করতে দু'বছর অনেক সময়৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়