1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, পানি ঢুকছে ঢাকায়

বাংলাদেশের উত্তর ও পূর্বাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে ক্রমশই৷ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন সিলেটের প্রায় ২০ হাজার মানুষ৷ এদিকে দু'দিন আগে বাসাবো মাদারটেকের একটি সংযোগ সড়ক ভেঙে পাশের বালু নদের পানি ঢুকেছে রাজধানী ঢাকায়৷

ঢাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বভাস কেন্দ্রের কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন জানান, অব্যাহত বৃষ্টিপাতের কারণে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে বাংলাদেশে৷ এবং সামনের দিনগুলিতে পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটতে পারে৷

ঢাকার মাদারটেকের শেখের জায়গা এলাকায় সাড়ে তিন হাজারের মতো পরিবার আছে৷ সেখানকার বাসিন্দা আবুল হোসেন জানা জানান, সেখানকার সংযোগ সড়কটি আগে থেকেই খারাপ ছিল৷ অনেক দিন এর সংস্কার করা হয়নি৷ ফলে পানির তোড়ে সহজেই ভেঙে গেছে এটি৷ পানিতে মাছের ঘের ভেসে যাচ্ছে৷

পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের কর্মকর্তারা জানান, ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার সিরাজগঞ্জ থেকে সারিয়াকান্দি ও আশেপাশের এলাকায় যমুনা নদীর পানি কয়েক দিন ধরে কমছে৷ কিন্তু এখন সেই পানি ভাটিতে চলে আসছে এবং তার ফলে ঢাকার আশেপাশের নদীগুলোতে পানি বাড়ছে৷

ঢাকার আশেপাশের নদীগুলোর মধ্যে শীতলক্ষ্যার পানি বিপদসীমার কাছাকাছি অবস্থান করছে৷ কামরাঙ্গীরচরের ২৯ বড়বাড়ি থেকে কোম্পানি ঘাট এলাকা পর্যন্ত এক কিলোমিটারব্যাপী জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে৷ তার ওপর বুড়িগঙ্গা নদীতে বন্যার পানি বেড়ে যাওয়ায় এ পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে৷ কোথাও কোথাও হাঁটু পর্যন্ত পানি৷ অনেকের বাড়িতে এবং দোকানে পানি প্রবেশ করেছে৷

অন্যদিকে সিলেটের সুরমা-কুশিয়ারার পানি বিভিন্নস্থানে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে৷ নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে ইতিমধ্যেই৷ সুনামগঞ্জের ৮টি উপজেলা বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে৷ ৩ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি রয়েছেন৷ পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, সুরমা নদীর পানি এ মুহূর্তে সুনামগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ৯৩ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে৷

বগুড়ার ধুনট উপজেলার যমুনা নদীর ভাঙন রক্ষায় নির্মিত স্পারে বানিয়াজান এলাকায় আবারও ৫০ মিটার মাউথ বেল্টের ঢালাই অংশে ফাটল ধরেছে৷ যে কোনো মুহূর্তে ঐ ৫০ মিটার নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে৷ পানি উন্নয়ন বোর্ড বালির জিও ব্যাগ ফেলে ফাটল অংশটুকুকে রক্ষার চেষ্টা করছে৷ যমুনার পানি বিপদসীমার ৬০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে৷

সিরাজগঞ্জে যমুনার পানি সামান্য কমলেও বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে৷ পানি বিপদসীমার ১৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে৷ এই এলাকার নিম্নাঞ্চলের কয়েক হাজার ঘর-বাড়িতে পানি প্রবেশ করায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে৷ সাতটি উপজেলার ৮২টি ইউনিয়নের মধ্যে অন্তত ৬০টি ইউনিয়ন কম-বেশি বন্যাকবলিত৷

উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু তাহের জানান, উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতির আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ সরকারি হিসেবে উত্তরাঞ্চলে ৪০,০০০ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে বন্যার কারণে৷ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩০০টি স্কুলও৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়