1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘বন্দুকযুদ্ধে' চার 'জঙ্গি' নিহত, তীব্র হচ্ছে জঙ্গিবিরোধী অভিযান

৪৮ ঘন্টার মধ্যে চারজন ' জঙ্গি' নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ জানা গেছে, নিহতরা একাধিক হত্যাকাণ্ড এবং জঙ্গি হামলার সঙ্গে জড়িত৷ এদিকে জঙ্গিবিরোধী অভিযান জোরদার করা হয়েছে বলে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন৷

চট্টগ্রামে পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী এবং একই দিনে ঝিনাইদহে এক হিন্দু পুরোহিতকে হত্যার পর বাংলাদেশে জঙ্গিবিরোধী অভিযান জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাঁরা৷

রবিবার চট্টগ্রামে পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতু এবং নাটোরে খ্রিস্টান ব্যবসায়ী সুনীল গোমেজকে হত্যা করা হয়৷ এর একদিন পর একই স্টাইলে মোটরসাইকেল আরোহীরা ঝিনাইদহে কুপিয়ে এবং জবাই করে হত্যা করে হিন্দু পুরোহিত অনন্ত গোপাল গাঙ্গুলিকে৷

মঙ্গলবার ভোররাতেই ঢাকায় পুলিশের ক্রসফয়ারে নিহত হন নিাষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জাময়াতুল মুজাহেদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)-এর সদস্য তারেক হোসেন মিলু ওরফে ইসমাইল এবং সুলতান মাহমুদ ওরফে রানা ওরফে কামাল৷

অডিও শুনুন 03:39

‘জঙ্গিদের বিরুদ্ধে এই অভিযান আরো তীব্র করা হবে’

পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান ডিআইজ মনিরুল ইসলাম মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘‘নিহত তারেক হোসেন মিলু ওরফে ইসমাইল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক রেজাউল করিমকে কুপিয়ে হত্যা করেছে৷ ওই ঘটনায় পরিকল্পনার নেতৃত্বে ছিল সে৷ দিনাজপুরে ইসকন মন্দিরে হামলার সঙ্গেও সে জড়িত ছিল৷ বন্দুকযুদ্ধে নিহত আরেকজন সুলতান মাহমুদ ওরফে রানা ওরফে কামাল বগুড়া শিয়া মসজিদে গুলি চালিয়ে ১ জনকে হত্যা করে৷ এরা দুজনই জেএমবির সদস্য৷''

চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল অধ্যাপক রেজাউল করিমকে হত্যা করা হয়৷ আর বগুড়ার শিয়া মসজিদে হামলা হয় গত বছরের ২৬ নভেম্বর ৷ তারপর ১০ ডিসেম্বর হামলা চালানো হয় ইস্কন মন্দিরে৷

গত ৪৮ ঘণ্টায় আরো তিন জঙ্গির নিহত হওয়ার খবরও জানিয়েছে পুলিশ৷

মঙ্গলবার ভোর রাতে রাজশাহীর চাঁপাইনবাবগঞ্জে জামালউদ্দিন নামে জেএমবি'র আরেকজন সদস্য পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়৷ পুলিশের দাবি, জামাল উদ্দিন গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর রাজশাহীর বাগমারার একটি মসজিদে বোমা হামলার সঙ্গে জড়িত৷

বুধবার ভোরাতে বগুড়ায় ক্রসফায়ারে নিহত হয়েছে জেএমবি'র আরেক সদস্য মো. কায়সার৷ সে-ও বগুড়ার শিবগঞ্জে গত বছরের ২৬ নভেম্বর শিয়া মসজিদে হামলার সঙ্গে জড়িত বলে পুলিশ জানায়৷

এদিকে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) বম্ব ডিস্পোজাল টিমের প্রধান ও অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) মো. ছানোয়ার হোসেন এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে 'নতুন যুদ্ধ' ঘোষণা করেছেন৷ ছানোয়ার বাংলাদেশে জঙ্গি বিরোধী অভিযানে একজন নির্ভরযোগ্য পুলিশ কর্মকর্তা৷

মঙ্গলবার তিনি তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘‘হ্যাঁ, আমি আর জঙ্গি-ফঙ্গিতে নাই৷ অনেকেই তো পুলিশের চাকরি করে, কিন্তু সবাই কি জঙ্গি নিয়ে কাজ করে? করে না৷ তাহলে এত ঝুঁকিপূর্ণ কাজ আমি কেন করবো? .... ঠিক এরকম একটি সিদ্ধান্তই দেখতে চেয়েছিল জঙ্গিরা৷ তাই শুনিয়ে দিলাম৷ তবে শুধু শোনানোর জন্য নয়, আমি আসলেই জঙ্গি নিয়ে আর কাজ করবো না৷ যেটা করবো সেটা হচ্ছে যুদ্ধ, যুদ্ধ করবো৷ আগে করতাম কাজ, এখন করবো যুদ্ধ৷... কাজের পরিবেশ তো আর নেই, যুদ্ধের পরিবেশ সৃষ্টি হয়ে গেছে৷ পরিবারের নিষ্পাপ সদস্যের ওপর আঘাত, যুদ্ধ না তো কি? তাই এখন জঙ্গি নিয়ে কাজ মানেই যুদ্ধ৷'

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান ডয়চে ভেলেবে বলেন, ‘‘জঙ্গিরিরোধী অভিযান জোরদার করার কারণেই পুলিশের সঙ্গে বন্ধুকযুদ্ধ হচ্ছে জঙ্গিদের৷ পুলিশ তাদের গোপন আস্তানায় অভিযানও চালাচ্ছে৷ আর এই অভিযানের কারণে গত দুইদিনে ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে কয়েকজন জঙ্গি নিহত হয়েছে৷''

তিনি বলেন, ‘‘জঙ্গিদের বিরুদ্ধে এই অভিযান আরো তীব্র করা হবে৷''

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,' পুলিশের কাজ সবসময়ই ঝুঁকিপূর্ন৷ পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলা হয়েছে৷ পরিবারের সদস্যদের ওপরও হামলার ঘটনা ঘটল৷ তাই স্বাভাবিক কারণেই তাদের প্রয়োজনীয় নিরপত্তার ব্যাপারে নজর দেয়া হচেছ৷'

একজন পুলিশ কর্মকর্তার ‘জঙ্গিদের বিরুদ্ধে নতুন যুদ্ধ ঘোষণা' সংক্রান্ত ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে ডিপুটি কমিশনার মাসুদুর রহমানর বলেন ‘‘তিনি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান আরো তীব্র করার কথাই বলেছেন৷''

প্রসঙ্গত, গত বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত সারা দেশে একই কায়দায় ৪৬টি হামলার ঘটনা ঘটেছে৷ এতে নিহত হয়েছেন ৪৮ জন৷ তাদের মধ্যে দু'জন পুলিশ সদস্য এবং পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রীও আছেন৷ গত আড়াই মাসে হত্যা করা হলো ১১ জনকে৷ এসব হামলার অনেকগুলোরই দায় স্বীকার করেছে আইএস ও আল-কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশের কথিত বাংলাদেশ শাখা আনসার আল ইসলাম৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়