বনে গ্লোবাল মিডিয়া ফোরাম শুরু | বিশ্ব | DW | 11.06.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

বনে গ্লোবাল মিডিয়া ফোরাম শুরু

কেন পৃথিবীতে বৈষম্য বাড়ছে? বৈষম্যের কারণেই কি দেশান্তরী হয় মানুষ? এখানে গণমাধ্যম কী ভূমিকা পালন করতে পারে? এরকম অসংখ্য প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তর খুঁজতে জার্মানির বনে শুরু হয়েছে গ্লোবাল মিডিয়া ফোরাম (জিএমএফ)-এর ১১ তম আসর৷

১২০টি দেশের প্রায় ২ হাজার সাংবাদিক, গণমাধ্যম উদ্যোক্তা, কর্মী, এনজিওকর্মী, ব্লগার এবং সংবাদসংশ্লিষ্টরা মিলিত হয়েছেন এবারের গ্লোবাল মিডিয়া ফোরামের সম্মেলনে৷

সোমবার সকাল ১০টায় বন শহরের ওয়ার্ল্ড কনফারেন্স সেন্টারে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন জার্মানির নর্থ রাইন ওয়েস্টফেলিয়া রাজ্যের প্রেসিডেন্ট আরমিন লাশেট৷

তিনি সকলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘‘এখানে আগে বনের পার্লামেন্ট ছিল৷ কাছের ওই চেয়ারটিতে আগে বনের চ্যান্সেলর বসতেন৷ সেখানে এখন দু'জন ব্লগার বসে আছেন৷ এভাবেই পরিবর্তন আসছে৷''

‘‘ডিজিটাইজেশন শিল্প কারখানার ধরন পরিবর্তন করছে৷ জার্মানির মতো প্রযুক্তিতে উন্নত দেশগুলোতেও এটি প্রভাব ফেলছে৷ ফলে আমাদের কেবল বৈশ্বিক অসাম্যতা নিয়ে আলোচনা করলেই হবে না, নিজ দেশের ভেতরের অসাম্যতা নিয়েও আলাপ করতে হবে৷''

‘‘বৈশ্বিক অসাম্যতা কি বৈশ্বিক অভিবাসনে ভূমিকা রাখছে? এক্ষেত্রে গণমাধ্যম কী ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে বা পারছে...'', এবারের সম্মেলনে এসব নিয়ে আলোচনা করা হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন৷         

‘ইউরোপীয় কমিশনের ডিজিটাল ইকোনমি অ্যান্ড সোসাইটি'র কমিশনার মারিয়া গাব্রিয়েল এতে মূল প্রবন্ধ পড়েন৷ তার প্রবন্ধের বিষয় ছিল, ‘ডিজিটালাইজেশন ইন ইউরোপ: হাউ ডাজ ইউরোপ মিট দ্য চ্যালেঞ্জেস৷' 

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ডয়েচে ভেলের কেনিয়ার সোহায়েলি ভাষা বিভাগের কর্মী এডিট কিমানি৷ শুরুতেই প্রত্যেককে নিজেদের মধ্যে পরিচিত হতে বলেন তিনি৷

এরপর এবারের জিএমএফে আয়োজকদের পক্ষ থেকে মঞ্চে আসেন ডয়চে ভেলের মহাপরিচালক পিটার লিমবুর্গ৷ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আগত অতিথিদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা ম্যারকেল৷

Opening ceremony / Peter Limbourg (DW, Director General, Germany) (DW/P. Böll)

জিএমএফে আয়োজকদের পক্ষ থেকে মঞ্চে আসেন ডয়চে ভেলের মহাপরিচালক পিটার লিমবুর্গ

সম্মেলনে বাংলাদেশ থেকেও গণমাধ্যমের শীর্ষ কর্মকতার্, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক, ব্লগারসহ মিডিয়ার সাথে জড়িত ব্যক্তিরা যোগ দিচ্ছেন৷

বাংলাদেশ থেকে এসেছেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (নির্বাহী) ফরিদুর রেজা সাগর, ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল হক, ইন্ডিডেন্ডেন্ট টেলিভিশনের নির্বাহী সম্পাদক খালেদ মহিউদ্দীন, আরটিভির প্রধান নির্বাহী আশিক রহমান, রেডিও ভূমির প্রধান কর্মকর্তা শামস সুমন এবং ডয়চে ভেল বাংলা বিভাগের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের বার্তা সম্পাদক ও বার্তাকক্ষ প্রধান জাহিদুল কবির৷

প্রথমদিন সকালের অধিবেশন শেষ হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে৷

এইচআই/এসিবি

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়