1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জলবায়ু পরিবর্তন

বনের জলবায়ু আলোচনায় ট্রাম্পের ছায়া

জার্মানির সাবেক রাজধানী বন-এ সোমবার থেকে শুরু হয়েছে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক আলোচনা৷ প্রায় ২০০ দেশের প্রতিনিধিরা এতে অংশ নিচ্ছেন৷ তবে আলোচকদের মাথায় ঘুরছে একটি নাম - ডোনাল্ড ট্রাম্প৷

Bonn Klimasekretariat der Vereinten Nationen (picture-alliance/dpa/O. Berg)

বন শহরে সোমবার থেকে আলোচনা শুরু হয়েছে

কারণ অতীতে তিনি কয়েকবার প্যারিসে স্বাক্ষরিত চুক্তি বাতিলের হুমকি দিয়েছেন৷ সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের উদ্যোগে বেশ কয়েকবছর ধরে আলোচনা হওয়ার পর ২০১৫ সালের নভেম্বরে প্যারিসে অনুষ্ঠিত জলবায়ু সম্মেলনে একটি চুক্তিতে উপনীত হয়েছিলেন বিশ্ব নেতারা৷

প্যারিস চুক্তি অনুযায়ী, গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন কমানোর অঙ্গীকার করেছে দেশগুলো৷ এছাড়া বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখতে চেয়েছে তারা৷ চুক্তি অনুযায়ী, ২০২৫ সালের মধ্যে ২৬ থেকে ২৮ শতাংশ (২০০৫ সালের তুলনায়) নির্গমন কমানোর অঙ্গীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র৷ উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম বায়ু দূষণকারী দেশ৷

তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর প্যারিস চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে আনার হুমকি দিয়েছেন৷ আগামী কয়েক দিন কিংবা সপ্তাহের মধ্যে এ সংক্রান্ত ঘোষণা আসতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে৷ ইতিমধ্যে তিনি জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সংস্থা ইউএনএফসিসিসির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বরাদ্দ, জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণার জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ এবং ইউএন ক্লাইমেট সায়েন্স প্যানেল ও গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড বাতিলের প্রস্তাব করেছেন

এই বিষয়টি ভাবাচ্ছে বনে আসা আলোচকদের৷ মালদ্বীপের পরিবেশ ও জ্বালানি মন্ত্রী তরিক ইব্রাহিম বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ‘‘অবশ্যই, ওয়াশিংটন থেকে যে ধরণের বার্তা আমরা পাচ্ছি তা এই মুহূর্তে আমাদের মনের একটি বড় অংশ দখল করে আছে৷’’

জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করা ওয়াশিংটনভিত্তিক সংস্থা ওয়ার্ল্ড রিসোর্সেস ইনস্টিটিউট এর প্রধান পাউলো কাবালেরো বলেন, এই অবস্থায় বনের আলোচনার পরিবেশকে কঠিন করে তুলেছে৷

যুক্তরাষ্ট্র প্যারিস চুক্তি থেকে সরে গেলে চুক্তির  কার্যকারিতা অনেকখানি কমে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছে পরিবেশবাদী কয়েকটি সংগঠন৷

১১-দিনব্যাপী বন সম্মেলনে আলোচকরা প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের নিয়মনীতি ঠিক করার কাজ শুরু করবেন৷ আগামী বছর পর্যন্ত এই কাজ চলতে পারে৷

এদিকে, চলতি বছরের শেষে বন শহরেই জাতিসংঘের আয়োজনে শীর্ষ সম্মেলন কপ-২৩ আয়োজিত হওয়ার কথা রয়েছে৷

এনএম/জেডএইচ (এপি, এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়