1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বড় বাজেটের বলিউড ছবি – বড় ধরণের ফ্লপ

২০১০ সালে বলিউড নানা হিট আর ফ্লপ ছবির মধ্যে দিয়ে পার করেছে৷ বড় বাজেটের ছবিগুলো মুখ থুবড়ে পড়েছে বক্স অফিসে৷ আশানুরূপ ব্যবসা করেনি বেশ কিছু ছবি৷ ফ্লপের তালিকায় রয়েছেন অভিষেক বচ্চন আর ঐশ্বরিয়া রাই-ও৷

Abhishek Bachchan, Aishwarya Rai Bachchan

ফ্লপের তালিকায় রয়েছেন অভিষেক বচ্চন আর ঐশ্বরিয়া রাই

তবে আশার কথা হল বেশ কিছু নতুন পরিচালক এবং চলচ্চিত্রকার পাওয়া গেছে এ বছর৷ ভালো কিছু ছবি আমরা ভবিষ্যতে এসব পরিচালকদের কাছ থেকে পাবো – তাই আশা করছে সবাই৷

বলিউডের ছবি পাড়ার বিশেষজ্ঞ ভিনোদ মিরানি৷ তিনি জানান, মাত্র ১২ টি ছবি বক্স অফিস কাঁপিয়েছে৷ এগুলো যে ব্যবসা করবে তাও কেউ শুরুতে ভাবেনি৷ বেশির ভাগ ছবিই বাজে চিত্রনাট্যর জন্য মার খেয়েছে৷ দর্শকরা তুড়ি মেরে এসব ছবি উড়িয়ে দিয়েছে৷

শাহরুখ খান বরাবরই হিট৷ এ বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি৷ ‘মাই নেম ইজ খান' শুধু ভারতে নয় বিদেশেও দারুণ ব্যবসা করেছে ছবিটি৷ এরপর রয়েছে আমির খানের ‘পিপলি লাইভ'৷ এক কৃষককে নিয়ে কাহিনী৷ সঙ্গে রয়েছে ‘তেরে বিন লাদেন' – কমেডি ছবি৷

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ভারত সফরের ঠিক আগে ফ্যানদের টানতে সক্ষম হয়েছে ‘ফাস গায়া রে ওবামা' ছবিটি৷

Deepika Padukone

‘খেলে হাম জি জান সে’ ছবির নায়িকা দীপিকা পাডুকন

কোন ছবিগুলো মার খেয়েছে ? এক নম্বরে আসছে ঋত্বিক রোশান আর বারবারা মোরির রোমান্টিক ড্রামা ‘কাইট্স'৷ দ্বিতীয় অবস্থানে অভিষেক বচ্চন আর ঐশ্বরিয়া রাই-এর ‘রাবণ'৷

‘খেলে হাম জি জান সে'ও আরেক ফ্লপ! সত্য ঘটনার ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে ছবিটি৷ ইংরেজ শাসনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো – ভারতীয় উপমহাদেশ মুক্ত করার কাহিনী৷ সেখানেও দেখা গেছে অভিষেক বচ্চনকে৷ ফ্লপের তালিকায় এসেছে ‘গুজারিশ'৷

হিট করেছে সালমান খানের অ্যাকশান-রোমান্টিক-কমেডি ‘দাবাঙ'৷ সঙ্গে রয়েছে অজয় দেবগনের ‘গোলমাল থ্রি' এবং ‘ওয়ান্স আপন এ টাইম ইন মুম্বই'৷

এছাড়া অ্যাকশান-ক্রাইম-ড্রামা ছবি ‘রাজনীতি', কমেডি ‘হাউজ ফুল' এবং রোমান্টিক কমেডি ‘আই হেইট লাভ স্টোরি' ভাল ব্যবসা করেছে৷

সালমানের খানের এপিক ছবি ‘ভীর', সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে কমেডি ‘নো প্রবলেম' এবং অক্ষয় কুমারের সঙ্গে ‘অ্যাকশান রিপ্লে' মোটামুটি ব্যবসা করেছে৷ ট্রেড এ্যানালিস্ট কমল নাহতা জানান, সবচেয়ে দুঃখজনক ঘটনা হল এই ছবিগুলো ছিল বড় বাজেটের ছবি৷ এই ছবিগুলো দারুণ ব্যবসা করবে – সে বিষয়ে সবাই নিশ্চিত ছিল৷

২০১১ সালে বলিউডের চলচ্চিত্র জগতে একটি বিষয়ের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে৷ তা হল ভাল কাহিনী, ভালো চিত্রনাট্য৷ নয়তো ছবির পাশাপাশি ফ্লপ করে যাবেন নায়ক-নায়িকারাও৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক