1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ফোনে আড়ি পাতার বিষয়ে উত্তেজনা বিরাজমান

ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদন বলছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ইয়াহু আর গুগলের তথ্যকেন্দ্রে নজরদারি করেছে৷ এনএসএ প্রধান অবশ্য বলছেন, মার্কিন নাগরিকদের নিরাপত্তার স্বার্থেই তারা বিভিন্ন সময়ে নজরদারি করেছেন৷

এদিকে ফোনে আড়ি পাতার বিষয়ে জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্র একে অপরকে দোষারোপ করেই যাচ্ছে৷ মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা কখনো বলেছেন, নিরাপত্তার স্বার্থে, কখনো বলছেন, সহযোগী দেশগুলোর সাথে সামরিক সহযোগিতার অংশ হিসেবে তারা এ কাজ করেছেন৷

ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, মার্কিন গোয়েন্দাদের কাছে তথ্য আছে, জার্মান ইন্টেলিজেন্স সার্ভিস বা বিএনডি যুক্তরাষ্ট্রের উপর নজরদারি করেছে৷ ২০০৮ সালে ৩০০ মার্কিন নাগরিকের ফোনে বিএনডি আড়ি পেতেছে, বলে জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট৷

এদিকে বুধবার জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের ফোনে আড়ি পাতার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা৷ সেখানেও এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা৷ এনএসএ প্রধান জেনারেল কিথ আলেকজান্ডার জানান, প্রতিটি দেশই একে অপরের উপর গুপ্তচরবৃত্তি করছে৷ তাই সহযোগী দেশগুলোর মধ্যে নতুন ধরনের সম্পর্ক উন্নয়নে কাজ করা উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইউরোপের অংশীদারিত্ব আসলেই গুরুত্বপূর্ণ বলে জানান তিনি৷

General Keith Alexander (L), director of the National Security Agency (NSA) testifies at a House Intelligence Committee hearing on Capitol Hill in Washington October 29, 2013. Top U.S. intelligence officials appeared at a congressional hearing on Tuesday amid a public uproar that has expanded from anger over the National Security Agency collecting the phone and email records of Americans to spying on European allies. Director of National Intelligence James Clapper watches on at right. REUTERS/Jason Reed (UNITED STATES - Tags: POLITICS MILITARY) / Eingestellt von wa

এনএসএ প্রধান জেনারেল কিথ আলেকজান্ডার ( বায়ে) জানান, প্রতিটি দেশই একে অপরের উপর গুপ্তচরবৃত্তি করছে

ব্লুমবার্গ মিডিয়া গ্রুপের একটি সংবাদ সম্মেলনে আলেকজান্ডার জানান, ফ্রান্স, স্পেন ও ইটালিতে নজরদারি করতে এনএসএ ৭ কোটি ফোন কলে আড়ি পেতেছে বলে যে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ ভুল৷ বাস্তবে সামরিক সহায়তার কারণে প্রত্যেকটি দেশ একে অপরকে সহায়তার জন্য এই নজরদারি করেছে বলে জানান তিনি৷ দেশের জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থেই তারা এ কাজ করেছেন বলে জানান আলেকজান্ডার৷

ওয়াশিংটন পোস্টের নতুন এক প্রতিবেদন বলছে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহের জন্য ইয়াহু আর গুগলের তথ্য ভান্ডারে নজরদারি করেছে এনএসএ৷ এছাড়া ভিন্ন ভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এ কাজ করেছে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি৷

২০১৩ সালের জানুয়ারির এক প্রতিবেদন উল্লেখ করে পত্রিকাটি বলছে, ৩০ দিনে ইমেল, অডিও ও ভিডিও কন্টেন্ট থেকে ১৮ কোটি ১০ লাখ রেকর্ড সংগ্রহ করেছে এনএসএ৷

এদিকে, ইন্টারনেট জায়ান্ট গুগুল এর আইন বিভাগের প্রধান ডেভিড ড্রুমন্ড ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, এনএসএ তাদের লিংক ভেঙে তথ্যকেন্দ্রে অবৈধভাবে প্রবেশ করেছে৷ কেননা তারা সরকারকে কোনো তথ্য দেননি এবং তাদের লিংকে প্রবেশের কোনো সুযোগও দেননি৷

এনএসএ প্রধান আলোকজান্ডার যথারীতি এই অভিযোগও অস্বীকার করেছেন৷ বুধবার রাতে এক বিবৃতিতে অবশ্য এনএসএ জানিয়েছে, বিদেশি নাগরিকদের ফোন বা মেলে নজরদারি করেছে তারা, তবে তা দেশের নিরাপত্তার স্বার্থেই করা হয়েছে৷

অন্যদিকে, জাতিসংঘ বলছে, ভবিষ্যতে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এ ধরনের গোপন নজরদারি চালাবে না বলে আশ্বাস পেয়েছে তারা৷

এপিবি/ডেজএইচ (এপি,এএফপি,রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়