1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ফেসবুক শীঘ্রই খুলে দেওয়া হবে বাংলাদেশে

সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ফেসবুক বাংলাদেশে আবারো খুলে দেওয়া হতে পারে৷ বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কমিশনের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার এ কথা বলা হলেও, ঠিক কবে এটা হবে - তা জানা যায় নি৷

default

ফেসবুকের লোগো

নিশ্চিত করে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না৷ জানিয়েছেন টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কমিশন বা বিটিআরসি'র চেয়ারম্যান জিয়া আহমেদ৷ তবে তাঁর কথায়, ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যেই ইসলামবিরোধী দুটি ফ্যান পেইজ এবং একটি অ্যাকাউন্ট সরিয়ে নিয়েছে৷ আর অপর অ্যকাউন্টও তারা সরিয়ে নেবে বলে জানিয়েছে ফেসবুক৷

শুধু তাই নয়, ফেসবুকের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা জো সুলিভান-এর উদ্ধৃতি দিয়ে জিয়া আহমেদ জানান যে, ভবিষ্যতে সমস্যা হতে পারে - এমন কোনো বিষয়ের ক্ষেত্রে স্থানীয় নিয়ন্ত্রকের সঙ্গে একযোগে কাজ করতে রাজি হয়েছে ফেসবুক৷ অর্থাৎ এরপর থেকে, বাংলাদেশের সংস্কৃতি ও মূল্যবোধ সম্পর্কে সজাগ থেকে সাইটটির নিরাপদ ব্যবহারের বিষয়টির দিকে নজর রাখতে রাজি হয়েছে সংস্থাটির কর্তৃপক্ষ৷ প্রসঙ্গত, ফেইসবুক বন্ধ করে দেয়ার পর এর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে এটিই প্রথম জবাব৷

Protest gegen Facebook in Pakistan

পাকিস্তানেও ওয়েবসাইটটি সাময়িক বন্ধের শিকার হয়েছিল

গত ২৯শে মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিরোধীদলীয় নেত্রীর ব্যাঙ্গাত্মক ছবি প্রকাশের অভিযোগে ফেসবুক সাইটটি বন্ধ করে দেওয়া হয় বাংলাদেশে৷ একাধিক আইডি ব্যবহার করে নানা ধরনের সাইবার অপরাধ করার অভিযোগে গ্রপ্তার করা হয় মাহবুব আলম রবিনকেও৷ বিটিআরসি'র চেয়ারম্যান জিয়া আহমেদ অবশ্য তখনই জানান যে, এ নিষেধাজ্ঞা সাময়িক এবং ‘আপত্তিকর' বিষয়গুলো তুলে নেওয়ার পরই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে৷ উল্লেখ্য, এর আগে ফেসবুক-এ নবী হযরত মুহাম্মদের (সাঃ) ছবি আঁকার প্রতিযোগিতার প্রতিবাদে বাংলাদেশের একটি ইসলামপন্থী রাজনৈতিক দল ঢাকায় সমাবেশ করে এবং ফেসবুক নিষিদ্ধ করার দাবি জানায়৷ পাকিস্তান, সিরিয়া, চীন, ভিয়েতনাম ও ইরানেও ওয়েবসাইটটি সাময়িক বন্ধের শিকার হয়েছিল৷

২০০৪ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে এই সামাজির নেটওয়ার্কিং সাইটটি৷ ‘চেকফেসবুক.কম' নামক একটি সাইটের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বাংলাদেশে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় আট লাখ ৭৬ হাজার ২০৷

প্রতিবেদন : দেবারতি গুহ / বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

সম্পাদনা : রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়