1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতার বিরুদ্ধে হ্যাকিং এর অভিযোগ!

শিরোনাম দেখে অবিশ্বাস্য ঠেকতে পারে৷ এতবড় নেটওয়ার্কিং সাইট যার, তার আবার হ্যাকিংয়ের দরকার কি? কিন্তু না, কৈশোর-যৌবনের ছোট ভুলগুলো হয়তো বড়ে হয়ে দেখা দেয় পরে, মার্ক-র ক্ষেত্রেও সম্ভবত তাই৷ অভিযোগ, ই-মেইল হ্যাকিং!

default

ফাইল ফটো

বিজনেসইনসাইডার ডট কম ম্যাগাজিন এর ভাষ্য ফেসবুক প্রতিষ্ঠান মার্ক জুকারবের্গ বছর কয়েক আগে প্রতিদ্বন্দ্বী আর সাংবাদিকদের ই-মেইল ঠিকানায় ঢুকেছিলেন অবৈধ পন্থায়৷ যাকে বলে হ্যাকিং! ফেসবুকের প্রতিষ্ঠা নিয়ে দুই বছরের এক অনুসন্ধানে ম্যগাজিনটির বের করে এনেছে এমনই তথ্য৷ তাদের ভাষ্যমতে, ২০০৪ সালে অন্তত দুইটি হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটিয়েছেন মার্ক, যার তথ্য প্রমাণ রয়েছে৷

প্রথম ঘটনাটি সম্ভবত বাড়তি সতকর্তার জন্যই করেছিলেন মার্ক৷ ২০০৪ সালে মার্ক জানতে পারেন হাভার্ড এর শিক্ষার্থীদের পত্রিকা দ্যা ক্রিমসন-এ তাকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হতে যাচ্ছে৷ আর সেটা বিশদ জানতে প্রতিবেদকের ফেসবুক লগইন-এর তালিকা বের করেন মার্ক৷ সেখানে দেয়া ভুল পাসওয়ার্ডগুলো তালিকা (অনেক সময় একজন ব্যবহারকারী ই-মেইল এর পাসওয়ার্ড দিয়ে ভুলক্রমে ফেসবুকে ঢোকার চেষ্টা করেন, অভ্যাস মত) থেকে আলাদা করে নিয়ে হ্যাক করেন প্রতিবেদকের হাভার্ড ই-মেইল একাউন্ট৷ এভাবে শুধু একজনের নয়, একাধিক ই-মেইল অ্যাকাউন্টে সফলতার সঙ্গে প্রবেশ করেন মার্ক৷

ম্যাগাজিনটির দাবি অনুযায়ী, দ্বিতীয় ঘটনাটিও হাভার্ডে৷ সেসময় হাভার্ডে মার্ক এর এক প্রতিদ্বন্দ্বী পক্ষ দাবি করে বসে, সামাজিক নেটওয়ার্কিং এর ধারণাটি তাদের কাছ থেকে চুরি করেছে মার্ক৷ এরপর মার্ক বিরোধী পক্ষের নেটওয়ার্কে ঢুকে বিভিন্ন কূটাঘাতের চেষ্টা করেন তিনি৷

স্বভাবতই প্রশ্ন জাগতে পারে এমনটা কেন করেছিলেন মার্ক৷ বিজনেসইনসাইডার ডট কম এর ভাষ্য অনুযায়ী, দ্যা ক্রিমসন পত্রিকা মার্কের প্রতিদ্বন্দ্বীদের তোলা ধারণা চুরির প্রসঙ্গ নিয়েই প্রতিবেদন প্রস্তুত করছিল৷ যেটা খুব একটা পছন্দ হয়নি মার্ক-র৷ তাই তা বন্ধ করতে এমন সব কাজ তাঁর৷ যদিও সেই দাবি এখন ফুলেফেঁপে বেশ ভালো অবস্থায় চলে এসেছে৷ তৈরি হচ্ছে ৬৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা৷

ম্যাগাজিনটির ভাষ্যমতে, পরবর্তীতে নাকি মার্ক হ্যাকিং এর বিষয়টি একজনের কাছে স্বীকারও করেছিলেন৷

অবশ্য, যাকে নিয়ে হ্যাকিংয়ের এত আলাপ সেই মার্ক জুকারবের্গ কিন্তু বিষয়টি নিয়ে এখনো মুখ খোলেননি৷ আর তাই আপাতত বিজনেসইনসাইডার ডট কম-এর দাবি দাবিই থেকে যাচ্ছে৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়