1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ফেসবুক ছাড়া ‘ফেসবুক ফোন’ বানাচ্ছে সবাই

ফেসবুক সদস্যের প্রতি তিনজনের একজন মুঠোফোনে ফেসবুক ব্যবহার করে থাকে৷ সাম্প্রতিক এক জরিপে জানা গেছে এই তথ্য৷ তাই ফেসবুক নিজেই একটি মুঠোফোন বাজারে নিয়ে আসবে এমন কথা শোনা যাচ্ছিল অনেক দিন ধরেই৷ কিন্তু সেটা এখনো হয় নি৷

default

এইচটিসি’র এমনি একটি স্মার্টফোনে ফেসবুক বোতাম বসানো হয়েছে

ফেসবুক ফোন নিয়ে গুঞ্জন

বর্তমানে ফেসবুকের সদস্য সংখ্যা প্রায় ৬০০ মিলিয়ন৷ যেটা বিশ্বের দেড়শো'রও বেশি রাষ্ট্রের মোট জনসংখ্যার চেয়ে বেশি৷ ফেসবুক নির্মাতা মার্ক জুকারবার্গ চান সদস্য সংখ্যা আরও বাড়াতে৷ তাঁর ইচ্ছা একদিন বিশ্বের সবাই ফেসবুক বন্ধু হবে৷ তাই তো ‘ফেসবুক ফোন' এর গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল বহুদিন ধরে৷

তবে সেই ঘোষণা এখনো না আসলেও ফেসবুক সহায়ক অনেক মুঠোফোন ইতিমধ্যে বাজারে চলে এসেছে৷ যেগুলো ব্যবহার করে খুব সহজে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়া, বন্ধুকে বার্তা পাঠানো এসব কাজ করা যায়৷ আর এজন্য মুঠোফোন-বান্ধব কিছু অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করেছে ফেসবুক৷ এছাড়া মুঠোফোন ব্যবহারকারীরা যেন ভালভাবে দেখতে পারে সেজন্য আলাদা ওয়েবসাইটও বানিয়েছে ফেসবুক৷

facebook Mark Zuckerberg headshot, as Facebook.com founder, photo on black

ফেসবুক নির্মাতা মার্ক জুকারবার্গ

কিন্তু মুঠোফোনের গায়ে ‘ফেসবুক' কথাটি লেখা থাকবে এমন ফোনসেটের দেখা এখনো পাওয়া যাচ্ছে না৷ আদৌ এই ধরনের কোনো ফোনসেট আসবে কি না সেটা নিয়েই এখন আলোচনা শুরু হয়েছে৷ ক'দিন আগে জুকারবার্গের দেয়া এক বক্তব্য এই আলোচনায় আরও রসদ জুগিয়েছে৷ তিনি বলেছেন এ বছরই ফেসবুক সহায়ক আরও ফোনসেট বাজারে আনবে বিভিন্ন কোম্পানি৷ কিন্তু ফেসবুক-এর নিজস্ব ব্র্যান্ডের ফোনসেট কবে আসবে সে ব্যাপারে কিছু বলেন নি তিনি৷

‘সালসা' ও ‘চা-চা'

তাইওয়ানের কোম্পানি এইচটিসি'র এক অনুষ্ঠানে এসব বক্তব্য দেন জুকারবার্গ৷ স্পেনের বার্সেলোনায় সদ্য সমাপ্ত ‘মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস'এ এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে কথা বলেন ফেসবুকের এই তরুণ নির্মাতা৷ ঐ অনুষ্ঠানে এইচটিসি দুটি নতুন স্মার্টফোন উদ্বোধন করেছে৷ ‘সালসা' ও ‘চা-চা' নামের ফোন দুটিতে নীল রংয়ের একটি ফেসবুক বোতাম রয়েছে৷ কোনো ব্যবহারকারী ছবি তুললে সঙ্গে সঙ্গে ঐ ফেসবুক বোতামটি জ্বলে উঠে ছবিটি ফেসবুকে আপলোড করার জন্য বলবে৷ এরপর শুধুমাত্র বোতামটিতে চাপ দিলেই সেটা ফেসবুকের মাধ্যমে সব বন্ধুর কাছে পৌঁছে যাবে৷

আবার ধরুন সালসা বা চা-চা মুঠোফোনে আপনি আপনার পছন্দের কোনো গান শুনছেন৷ এখন যদি আপনি সেটা কোনো বন্ধুকে পাঠাতে চান তাহলে শুধুমাত্র ফেসবুক বোতামে চাপ দেয়াটাই যথেষ্ট৷ এছাড়া কোনো ফেসবুক বন্ধু ফোন করলে আপনার ফোনে তাঁর প্রোফাইল ভেসে উঠবে৷ আর গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম বা জিপিএস থাকার কারণে ফেসবুক ব্যবহারকারী তার বন্ধুর সঠিক অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারবে৷

চা-চা মডেলের ফোনে রয়েছে একটি পূর্ণাঙ্গ কি-বোর্ড ও ২.৬ ইঞ্চির টাচস্ক্রিন৷ অন্যদিকে সালসায় রয়েছে ৩.৪ ইঞ্চির টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে৷ এগুলো চলবে গুগলের অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে৷ এছাড়া দুটি ফোনেই ছবি তোলার জন্য রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও ভিডিও কলের জন্য ভিজিএ ক্যামেরা৷ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে এ বছরের শেষের দিকে ফোন দুটি পাওয়া যাবে বলে জানা গেছে৷ তবে দাম এখনো ঠিক হয় নি৷

অন্যান্য ফেসবুক ফোন

এইচটিসি ছাড়াও লন্ডন ভিত্তিক আইএনকিউ কোম্পানিও দুটি ফেসুবক ফোন এনেছে৷ এর একটির নাম ‘ক্লাউড টাচ্' অন্যটি ‘ক্লাউড কিউ'৷ এই দুই ফোনের ব্যবহারকারীরা খুব সহজেই তাদের ফেসবুকের ‘ওয়াল' অপশনে চলে যেতে পারবেন৷ এই ফোন দুটিও চলবে গুগলের অ্যানড্রয়েড সিস্টেমে৷

এদিকে আরও অভিনব পন্থা নিয়ে এসেছে বিখ্যাত কার্ড নির্মাতা গিমালতো৷ ফোন নয়, তারা বানিয়েছে সিম কার্ড, যার মধ্যে ফেসবুকের সাধারণ অপশনগুলো আছে৷ ফলে যে মুঠোফোনেই এটা লাগানো হবে সেটা দিয়েই ফেসবুক ব্যবহার সহজ হবে৷ অর্থাৎ ফেসবুকের জন্য আলাদা করে দামি ফোন কেনার প্রয়োজন হবে না৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

ইন্টারনেট লিংক