1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ফেসবুকে হ্যাকারদের কবলে পড়া এক মেয়ের কথা

জার্মানি প্রবাসী বাংলাদেশী গৃহিনী শামসুন্নাহার প্রেমা আরো অনেকের মতোই ফেসবুক ব্যবহার করতেন৷ কিছুদিন আগে এক বন্ধুর পাঠানো লিংকে ক্লিক করে অ্যাকাউন্টটি হারান তিনি৷ হ্যাকররা তাঁর বন্ধুদের কাছ থেকে টাকাও নিয়েছে৷

ভিডিও দেখুন 03:09

বাঙালি হ্যাকাররা যেভাবে মেয়েদের বিপদে ফেলছে

প্রেমার মতো আরো অনেকেই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকের কথা জানিয়েছেন৷ হ্যাকাররা সাধারণত ফেসবুক ম্যাসেজে একটি লিংক পাঠান, যেখানে লেখা থাকে ছবি প্রতিযোগিতায় আমার ছবিতে লাইক দিন বা ‘আমার নতুন ছবিতে লাইক দেওয়া'র মতো বার্তা৷ সেসব বার্তা লেখা হয় সাধারণ বাংলায় এবং পরিচিত কোনো বন্ধুর কাছ থেকে, যাতে সন্দেহের অবকাশ না থাকে৷ কিন্তু কেউ যদি লিংকে ক্লিক করে নতুন করে ফেসবুক আইডি বা পাসওয়ার্ড দেয় তাহলে সেটা চলে যায় হ্যাকারের কাছে৷ এরপর হ্যাকার দ্রুত সেগুলো ব্যবহার করে ফেসবুক অ্যাকাউন্টটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়৷

অ্যাকাউন্ট নিয়ন্ত্রণে নেয়ার পর হ্যাকাররা সেই অ্যাকাউন্টের সঙ্গে থাকা বন্ধুদের কাছে দ্রুত অর্থ সাহায্য চেয়ে বার্তা পাঠায়৷ বাংলা ভাষায় লেখা সেসব বার্তা দেখে বিভ্রান্ত হয়ে ‘বিকাশ'-এর মাধ্যমে কেউ টাকা পাঠালে তা চলে যায় হ্যাকারের কাছে৷ এছাড়া অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেয়ার নামেও টাকা আদায় করে হ্যাকারচক্র

বাংলাদেশে এভাবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অর্থ আদায়ের অপরাধ ক্রমশ বাড়লেও পুলিশের তরফ থেকে এখনো কাউকে গ্রেপ্তারের কথা শোনা যায়নি৷ তবে ডয়চে ভেলেকে পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তারা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত আছেন এবং কেউ এ ধরনের অপরাধের শিকার হলে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে সহায়তা চাইতে পারেন৷

ডয়চে ভেলেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে শামসুন্নাহার প্রেমা জানিয়েছেন, তিনি ঠিক কিভাবে আক্রান্ত হয়েছিলেন এবং অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার পর কী করেছেন৷ সাক্ষাৎকারটি দেখতে উপরের ছবিতে ক্লিক করুন অথবা এখানে যান

আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও