1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ফেসবুকে নিজেকে বাঁচানোর সাত উপায়

ফেসবুকে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিয়ে টানাটানি চলছেই৷ গত বছরও চাইলে নিজেকে মোটামুটি লুকিয়ে কিংবা নির্দিষ্ট বন্ধুবান্ধবের মধ্যে নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখার সুযোগ ছিল৷ কিন্তু এখন আর তেমনটা নেই৷

default

নিরাপত্তাই বড় প্রশ্ন (ফাইল ফটো)

তার ওপর সম্প্রতি বিশেষ বাগ এর ‘কল্যানে' গোপন চ্যাটও নাকি দেখতে পেয়েছিল অন্যরা৷ এমনকি নিরাপত্তা সেটিংস উপেক্ষা করেও দেখা যাচ্ছিল অন্যের প্রোফাইল৷ ফেসবুক অবশ্য সেই বাগ নিয়ন্ত্রনে এনেছে৷ তাই আপাত রক্ষা৷

এদিকে, সামাজিক নেটওয়ার্কিং বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন সাত সুরক্ষার কথা৷ যা, মোটামুটি ভাবে ফেসবুকে আপনাকে নিরাপদ রাখতে পারে৷ চলুন নজর দেই সেদিকটায়৷

প্রথম পরামর্শ হচ্ছে বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে সতর্কতা৷ ফেসবুকে যেকেউ আপনাকে বন্ধুর আমন্ত্রণ পাঠাতে পারে৷ কিন্তু সবাই কি বন্ধু? উত্তর নিঃসন্দেহে ‘না'৷ তাই নিজের গোপনীয়তার বিধিনিষেধের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বন্ধু নির্বাচন করুন৷ একইসঙ্গে কাউকে বন্ধু তালিকায় যোগ করার আগে তার সম্পর্কে খানিকটা জেনে নিন৷

ফেসবুকে অনেকেই নিজের সঙ্গে যোগাযোগের সবকিছু দিয়ে দেন৷ মানে মোবাইল, ফোন, ই-মেইল এমনকি বাড়ির ঠিকানা পর্যন্ত৷ বিশেষজ্ঞরা বলছেন এই অভ্যাস মোটেই ঠিক নয়৷ তাই যোগাযোগের অংশটি বন্ধ করে রাখাই সমাচীন৷ সেক্ষেত্রে সবাই আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে ফেসবুক বার্তা সেবার মাধ্যমে৷ আর সেটাই যোগাযোগের নিরাপদ উপায়৷ অবশ্য একান্তই যদি, যোগাযোগের অংশ উম্মুক্ত করেত চান, সেটা শুধুমাত্র বন্ধুদের জন্য করুন৷

আগেই বলেছি ফেসবুকের বন্ধু তালিকায় সবাই আপনার প্রকৃত বন্ধু নয়৷ এদের কেউ হয়তো কিঞ্চিৎ পরিচিত, কেউ পারিবারিক সদস্য আবার কারো সঙ্গে পেশাগত সম্পর্ক৷ নিরাপত্তার খাতিরে বন্ধুর তালিকাকে তাই আলাদা আলাদা বিভাগে ভাগ করে ফেলুন৷ এরপর এসব বিভাগের সঙ্গে প্রয়োজনমত নিরাপত্তা অপশন যোগ করেই দিলেই অনেকটা বেঁচে গেলেন আপনি৷

ফেসবুকে ছবি পাঠানো এবং অন্যের দ্বারা ট্যাগ হবার বিষয়ে সতর্ক থাকুন৷ অনেকসময় দেখা যায় বিব্রতকর কিংবা অশ্লীল কিংবা অপ্রাসঙ্গিক কোন ছবির সঙ্গে আপনাকে ট্যাগ করে দিলো কোন বন্ধু৷ এরপর অন্যরাও তা দেখতে পাবে ট্যাগ এর বদৌলতে৷ তাই সম্ভব হলে নিরাপত্তা অপশনে গিয়ে ট্যাগ করার সুযোগ বন্ধ করে দিয়ে আসুন৷ একইসঙ্গে আপনিও অপ্রয়োজনীয় ছবি ট্যাগিং থেকে বিরত থাকুন৷ বাড়তি ঝামেলা কে চায় বলুন?

ফেসবুকে আপনার ফটো অ্যালবাম কারা দেখতে পাবে বা কারা দেখতে পাবে না তা ঠিক করে দিন৷ এতে করে অপছন্দের কিংবা অপরিচিত কেউ আপনার ছবির দখল নিতে পারবে না৷

গুগল কিংবা অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিন যেন আপনার প্রোফাইলে দেয়া তথ্য না পায় তা নিশ্চিত করুন৷ নিরাপত্তা সেটিংস একটু বদলে নিলেই সেটা সম্ভব হবে৷

ফেসবুক থেকে যখন বেরিয়ে যাচ্ছেন, তখন অবশ্যই লগ আউট করে যান৷ আবার বলছি, পাতাটিকে সরাসরি বন্ধ না করে লগ আউট করার পর বের হোন৷ এটাই সর্বশেষ পরামর্শ৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়