1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ফেসবুকের গড়নবরন বদলানো যাবে মুঠোফোনে

ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতার মস্তিষ্কে সর্বদাই বোধহয় নিত্য নতুন চিন্তাভাবনা গিজগিজ করে৷ নয়তো দু’দিন পর পর ফেসবুকে এত পরিবর্তন আনে কেন তাঁর সংস্থা! এইতো এই সপ্তাহেই বন্ধুদের আলোচনা দেখছিলাম, ফেসবুকের নতুন রূপ নিয়ে৷

এই নতুন রূপ দেখে শুরুতে হাঁ হয়ে গিয়েছিলেন অনেকে৷ না, সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে নয়, বরং এটাকে বোঝার চেষ্টাতেই থমকে যেতে হয়েছিল অনেককে৷ প্রোফাইলের ওপরে নিজের সম্পর্কে ছোট্ট কয়েক লাইন, তারপর একগাদা বড় বড় ছবি৷ নিচে আবার পছন্দ-অপছন্দের তালিকাগুলো ছবি আকারে উপস্থিত৷ সবমিলিয়ে ফেসবুক তার ব্যবহারকারীদের প্রোফাইলগুলো পুরোটাই বদলে দিয়েছে৷

যে কেউ এক বাক্যে স্বীকার করে নেবেন, প্রোফাইলের নতুন এই চেহারায় ছবিটাই প্রাধান্য পেয়েছে বেশি৷ বর্তমান প্রেক্ষাপটে সেটা খুব স্বাভাবিকও৷ কেননা, বর্তমান ইন্টারনেট দুনিয়ার সামাজিক আচার ব্যবহার হয়ে উঠছে ছবিকেন্দ্রিক৷ গুটিকয়েক নতুন ওয়েবসাইটও চালু হয়েছে, যারা কিনা ছবির মাধ্যমেই অনলাইনে সামাজিক সম্পর্ক মজবুত করতে চায়৷ তাহলে, এই চেষ্টা থেকে ফেসবুকই বা বাদ থাকবে কেন?

Frau Facebook Laptop Flash-Galerie

ফেসবুকের সেটিংস বদলাতে এখন আর ল্যাপটপ চালু করতে হবে না (ফাইল ফটো)

সে যাই হোক, ফেসবুক ব্যবহারকারীদের এক বড় উদ্বেগ নিরাপত্তা বা তথ্যের সুরক্ষা নিয়ে৷ এই সাইট থেকে অনেকের একান্ত ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার ঘটনা নতুন নয়৷ অনেককেই এজন্য বিব্রত হতে হয়েছে৷ তারপরও সতর্কতা খুব একটা দেখা যায়না৷ বরং শুধু ফেসবুকের নিরাপত্তা সেটিংস সম্পর্কে সচেতন না হওয়ায় এখনো অনেকের একান্ত ব্যক্তিগত ছবি সবাই দেখতে পারছে৷

ফেসবুক কিন্তু এর নিরাপত্তা সেটিংস সাইটটি ব্যবহারকারীদের সার্বক্ষণিক আয়ত্বে রাখার চেষ্টা করছে৷ আগে শুধুই কম্পিউটারে ফেসবুক প্রাইভেসি সেটিংস পরিবর্তনের সুযোগ থাকতো৷ ফলে যখন তখন এর গড়নবরন বদলানোটা সীমাবন্ধ ছিল৷ এই সপ্তাহে ফেসবুক সেটিংসের গুরুত্বপূর্ণ কিছু অংশ যোগ করা হয়েছে মুঠোফোন সংস্করণে৷

এখন থেকে আপনি চাইলে, মুঠোফোনেই বদলে নিতে পারেন ফেসবুকের সেটিংস৷ এজন্য মুঠোফোনে সাইটটিতে প্রবেশের পর নিচের দিকে থাকা সেটিংস বোতামে চাপ দিন৷ এরপর আপনার ফেসবুকের গড়নবরন সাজিয়ে দিন নিজের মতো করে৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন