1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ফেটেল শেষমেষ জার্মান গ্রঁ প্রি জিতলেন

ফর্মুলা ওয়ানে মিশায়েল শুমাখারের পর সেরা জার্মান ড্রাইভার সেবাস্টিয়ান ফেটেল স্বদেশের মাটিতে জয়ী হতে পারলেন, স্বদেশের মানুষের সামনে৷ কিন্তু টায়ারের সমস্যা থেকেই গেল৷

ঠিক অ্যান্ডি মারের উইম্বলডন জেতার মতো না হলেও, ২৫ বছর বয়সের সদা হাস্যমুখ জার্মান তরুণটির ন্যুরবুর্গরিং-এ জেতার অনুভূতি প্রায় মারের আবেগের কাছাকাছি পৌঁছে যায়৷ পর পর তিনবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফেটেলের দেশের মাটিতে একবার জেতার প্রয়োজন ছিল৷ চলতি পয়েন্টের তালিকায় ফেটেল এখন বাকিদের থেকে ৩৪ পয়েন্টে এগিয়ে৷

ন্যুরবু্র্গরিং-এ ফেটেল জিতলেন কিছুটা অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে৷ তার আগে সিলভারস্টোনে একাধিক গাড়ির টায়ার ফাটা নিয়ে ড্রাইভারদের ধর্মঘট করার কথাও শোনা যাচ্ছিল৷ শেষে টায়ার নির্মাতা পিরেল্লি টায়ারের ভিতরে ইস্পাতের বেল্টের পরিবর্তে কেভলার সিন্থেটিক ফাইবারের বেল্ট বসানো একটি অপেক্ষাকৃত নিরাপদ রিয়ার টায়ার সরবরাহ করে নিজের ও ফর্মুলা ওয়ানের মুখরক্ষা করে৷ বলতে কি, এর পরে হাঙ্গেরির উঙ্গারোরিং-এর দৌড়েই এ টায়ার আর ব্যবহৃত হবে না৷

হাঙ্গেরির দৌড় থেকে নাকি টায়ারের ব্যাপারে আর একটু দীর্ঘমেয়াদি উদ্যোগ নেওয়া হবে৷ আগামী ১৭ থেকে ১৯ জুলাই সিলভারস্টোনে তরুণ ড্রাইভারদের যে টেস্ট-এর ব্যবস্থা করা হয়েছে, সেখানে ফর্মুলা ওয়ানের ড্রাইভাররা একটি বিশেষ টেস্টিং সেসনে নতুন টায়ারগুলো টেস্ট করার সুযোগ পাবেন – যে টায়ারগুলো হবে ২০১২ সালের মরশুমের টায়ারগুলোর অনুরূপ৷ হাঙ্গেরিতে এই টায়ারগুলোই ব্যবহার করা হবে৷ কাজেই ফেটেল যেমন বলেছেন: ‘‘এই মুহূর্তে আমরা ঠিক জানি না, আমরা হাঙ্গেরিতে কি টায়ার নিয়ে চালাবো৷''

তবে সেটা যে ন্যুরবুর্গরিং-এর কেভলার বেল্ট বসানো পিছনের টায়ারগুলো হবে না, সেটা ফেটেল ও রেড বুল টিমের জানা৷ অথচ ন্যুরবুর্গরিং-এ এই রিয়ার টায়ারগুলোর ডিগ্রেডেশন হয়েছে কম, নিরাপত্তাও ছিল বেশি, কাজেই এগুলিকে বিদায় দিতে রেড বুলের কিছুটা মন কেমন করবে বৈকি৷ অন্যদিকে ন্যুরবুর্গরিং-এ দ্বিতীয় হয়েছেন লোটাস দলের রোম্যাঁ গ্রোজঁ৷

Formel 1 Deutschland Nürburgring Juli 2013

ফেটেল শেষমেষ জার্মান গ্রঁ প্রি জিতলেন

তিনি বলেছেন: তিনি বুদাপেস্ট থেকে যে নতুন টায়ারগুলি ব্যবহৃত হবে, সেগুলির প্রত্যাশায় রয়েছেন৷ এছাড়া, গত বছরের টায়ারগুলো এ বছরের চেয়ে ভালো ছিল বলেই তাঁর ধারণা৷

ন্যুরবুর্গরিং-এর দৌড়ে কেভলার যুক্ত টায়ারগুলোর পার্ফর্মেন্স দেখে শুধুমাত্র একটি টিম মাথামুণ্ডু কিছু বুঝে উঠতে পারেনি এবং তারা হল মার্সিডিজ৷ গত রবিবার গোটা জার্মানিতে গ্রীষ্ম ছিল সত্যিই গ্রীষ্মের মতো, ন্যুরবুর্গরিং-এও তাই৷ তার ফলে হয়ত টায়ারের রাবার প্রভাবিত হয়েছিল৷ যাই হোক, মার্সিডিজের লিউয়িস হ্যামিল্টন পোল পোজিশন থেকে শুরু করে পঞ্চম স্থানে দৌড় শেষ করেন৷ দলের অপর ড্রাইভার নিকো রসব্যার্গ দৌড় শেষ করেন নবম স্থানে৷

বুদাপেস্টের দৌড়ের আগে তিন সপ্তাহ বিরতি৷ মাঝে পড়বে সিলভারস্টোনের টেস্টিং৷ ফর্মুলা ওয়ানের টায়ার কাহিনির যে সেখানেও সমাপ্তি ঘটবে, এমন আশা করাটা হয়ত ভুল হবে৷

এপি/ডিজি (রয়টার্স) 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়