1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ফুটবলের নানা সমস্যা

বায়ার্নের সমস্যা ফ্যানদের মতিগতি৷ ফ্রান্সের সমস্যা গোটা তিনেক খেলোয়াড়ের যৌন কেলেঙ্কারি৷ দক্ষিণ আফ্রিকার সমস্যা ম্যাচ প্র্যাকটিসের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বী খুঁজে পাওয়া৷

default

ফ্রঙ্ক রিবেরি: ডক্টর জোকিল এ্যান্ড মিস্টার হাইড?

বায়ার্ন মিউনিখের কোচ লুই ফ্যান গাল শুক্রবার অভিযোগ করেছেন যে, বার্সেলোনা কিংবা আয়াক্স আমস্টারডামের ফ্যানদের মতো বায়ার্নের ফ্যানরাও নাকি শুধু সুদিনের বন্ধু, দুর্দিনে তারা কেউ নয় - এক তথাকথিত ‘সাউথ কার্ভ'-এর কট্টর ফ্যানরা ছাড়া৷ ফ্যান গালের ভাষায় ঐ সুদিনের ফ্যানরা যেন থিয়েটার দেখতে আসেন৷ অথচ ক্লাবের যখন সময় ভালো চলছে না, তখনই তো ফ্যানদের সাপোর্ট সবচেয়ে বেশী প্রয়োজন৷

ত্রিমুকুট জয়ের স্বপ্ন

ফ্যান গাল'এর হঠাৎ এ'রকম ফ্যানদের গালমন্দ করার কারণ সম্ভবত এই যে, বায়ার্ন এবার মরশুমের গোড়ায় বেশ নাস্তানাবুদ হয়ে পরে হালে পানি পেয়েছে৷ এখন তো তারা ‘ত্রিমুকুট', অর্থাৎ বুন্ডেসলিগা খেতাব, জার্মান কাপ এবং চ্যাম্পিয়নস লীগ জয় করার পথে৷ বুন্ডেসলিগার আর দু'টি সপ্তাহান্ত বাকি৷ বায়ার্ন আর শালকে তালিকার শীর্ষে, ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে, যদিও গোলের ব্যবধানে বায়ার্ন ১৩ গোলে এগিয়ে৷ এছাড়া বায়ার্নকে আরো খেলতে হবে বোখুম এবং হের্থা বার্লিনের বিরুদ্ধে - দু'টি ক্লাবই তালিকার তলানি৷ ওদিকে শালকে শনিবার খেলছে তালিকার তৃতীয় ভের্ডার ব্রেমেনের বিরুদ্ধে, এবং তার পরের শনিবার লড়াকু মাইঞ্জ'এর বিরুদ্ধে৷ কাজেই বায়ার্নের বুন্ডেসলিগা খেতাবটা প্রায় হাতের নাগালে৷

কপাল যখন ফেরে, তখন সবই মনমতো হয়৷ ফ্যান গাল তো এবার মুখ খুলে বলেই ফেলেছেন যে, ২২শে মে মাদ্রিদে চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনালে বার্সেলোনা না হয়ে ইন্টার মিলান যে বায়ার্নের প্রতিদ্বন্দ্বী, তা'তে তিনি স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছেন৷ ‘‘ইন্টার বার্সেলোনার মতো অতোটা এ্যাটাকিং খেলা খেলে না,'' বলেছেন ফ্যান গাল৷

ফ্যান গালের তৃতীয় সমস্যা বায়ার্ন তথা ফরাসি জাতীয় একাদশের তারকা ফ্রঙ্ক রিবেরি'কে নিয়ে৷ একে তো রিবেরি চ্যাম্পিয়নস লীগের সেমিফাইনালে লাল কার্ড দেখার পর উয়েফা তাকে পরের তিনটি ম্যাচের জন্য সাসপেন্ড করেছে - যার অর্থ, রিবেরি মাদ্রিদের ফাইনালে খেলতে পারবে না৷ বায়ার্ন অবশ্য উয়েফা'র সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপীল করেছে৷ শুনানী ৫ই মে৷

জন্মদিনের পার্টি

ফরাসি কোচ রেমঁ দমেনেক'এর সমস্যা, শুধু রিবেরি তো নয়, সেই সঙ্গে করিম বেঞ্জেমা এবং সিডনি গোভু, তিন তিনজন খেলোয়াড় ঐ একই যৌন কেলেঙ্কারির জালে জড়িয়েছে৷ অথচ রিবেরি ছিল জিনেদিন জিদানের পর ফ্রান্সের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলোয়াড়৷ সেই রিবেরি গত বছরের এপ্রিল মাসে তার ২৬তম জন্মদিনে এক ফরাসি মহিলাকে মিউনিখের একটি হোটেলে আমন্ত্রণ জানায়৷ ঐ মহিলা পারিশ্রমিকের বদলে যৌন সম্পর্কেও লিপ্ত হন৷ পরে দেখা যায় যে, সে-সময়ে ঐ মহিলার ১৮ বছর পূর্ণ হয়নি৷ এ'নিয়ে রিবেরি'কে ইতিমধ্যেই সরকারিভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তবে তার পুলিশি জেরা সম্ভবত বিশ্বকাপের আগে হচ্ছে না, বলে শেষ খবর৷ নয়তো তার ফ্রান্সের হয়ে খেলা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন এক ফরাসি মন্ত্রী৷

‘কেউ আমাদের সঙ্গে খেলতে চায় না'

সবশেষে আসা যাক দক্ষিণ আফ্রিকার ব্রাজিলিয়ান কোচ আলবের্তো পারেইরা'র সমস্যায়৷ শুধুমাত্র দেশে যারা খেলে, সেই প্লেয়ারদের নিয়ে জার্মানি এসেছিলেন ট্রেনিং ক্যাম্প করতে৷ ভুল প্ল্যানিং-এর ফলে এমনিতেই কোনো ভালো প্রতিযোগী পাওয়া যায়নি৷ আইসল্যান্ডের আগ্নেয়গিরির উৎপাতে চীন আর এস্টোনিয়ার দল জার্মানি আসতে পারেনি ফ্রেন্ডলি খেলার জন্য৷ পাওয়া গেছে উত্তর কোরিয়া এবং জামাইকা'কে৷ তা'ও আবার পারেইরা'র ‘বাফানা বাফানা'-রা একবার ড্র করেছে আর একবার ২-০ গোলে জিতেছে৷ আসল কথা হল, জার্মানির ক্লাবগুলোর কেউই নাকি এই বুন্ডেসলিগা মরশুম - এবং ইউরোপীয় ফুটবলের মরশুম - শেষ হবার মুখে পারেইরা'র ‘খোকাদের' সঙ্গে খেলতে চায়নি, বায়ার্ন মিউনিখের রিজার্ভ দলও নয়৷ ব্যর্থমনোরথ হয়ে পারেইরা শুক্রবার দল সমেত ফেরত গেছেন৷

প্রতিবেদক: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়