1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ফুকুশিমার তেজষ্ক্রিয়তা সরাসরি মিশে যাচ্ছে সমুদ্রে

ফুকুশিমা দাইচি সংলগ্ন সমুদ্রে পাওয়া গেল চরম মাত্রায় আয়োডিন তেজষ্ক্রিয়তা৷ বিশেষজ্ঞদের আশংকা, সুনামি বিধ্বস্ত ফুকুশিমার তেজষ্ক্রিয়তা কোনভাবে সরাসরি সমুদ্রে মিশে যাচ্ছে৷

default

সমুদ্রের খুব কাছেই ফুকুশিমা পারমাণবিক কেন্দ্র

ফুকুশিমার আশপাশে তেজষ্ক্রিয়তা ছড়াচ্ছিল, সে কোন নতুন খবর নয়৷ নতুন খবর হল শনিবার, যখন দেখা গেল সমুদ্রের জলে সরাসরি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের তেজষ্ক্রিয়তা মিশে যাচ্ছে৷ এবং তার মাত্রা ভয়াবহ রকমের বেশি৷

গত কয়েকদিন ধরেই ফুকুশিমার আশেপাশে বেশ কিছু জায়গা থেকে সমুদ্রের জলের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছিল৷ দেখা গেছে, ফুকুশিমার ৩৩০ মিটার দূরে উপকূলীয় অঞ্চলে সমুদ্রের জলের যে নমুনা পাওয়া গেছে, তাতে স্বাভাবিকের তুলনায় তেজষ্ক্রিয়তার পরিমাণ ১২০০ গুণ বেশি৷ বলা বাহুল্য, নতুন এই পরিস্থিতিতে তেজষ্ক্রিয়তা ছড়ানোর আশংকা অনেকটাই বেড়ে গেছে৷ কারণ, সমুদ্রে মিশে যাওয়া এই তেজষ্ক্রিয়তা প্রাকৃতিক মহামারী ডেকে আনতে পারে যেকোন মুহূর্তে৷

NO FLASH Japan Strahlenbelastung

তেজষ্ক্রিয়তা রোখার চেষ্টা চলছে বিভিন্ন উপায়ে৷

কেন এত বেশি মাত্রায় তেজষ্ক্রিয়তা ছড়াচ্ছে সমুদ্রে? এ প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে টোকিও ইলেকট্রিক পাওয়ার সংস্থার এক বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, শুধুমাত্র বৃষ্টি বা অন্যান্য কারণে যে পরিমাণ তেজষ্ক্রিয়তা সমুদ্রে মিশছে, তার থেকে এত বেশি মাত্রায় তা বেড়ে যাওয়াটা অসম্ভব৷ সেক্ষেত্রে একটাই আশংকা করছেন বিশেষজ্ঞরা৷ আর তা হল, ফুকুশিমার তেজষ্ক্রিয়তা কোন এক লিকেজের মাধ্যমেই সরাসরি সমুদ্রে চলে যাচ্ছে৷ অদূর ভবিষ্যতে যা কিনা বড় মাপের ক্ষতি ডেকে আনতে সক্ষম, যদি এখনই সেই লিকেজকে খুঁজে বের করে তা মেরামত না করা যায়৷

তবে, অন্য মতও আছে৷ জাপানের পারমাণবিক সুরক্ষা দপ্তরের এক কর্মকর্তার মতে, সমুদ্রের জলে তেজষ্ক্রিয়তার যে অতিরিক্ত মাত্রা ধরা পড়েছে, তা পান করলে মানবদেহে ক্যান্সার হতেই পারে৷ কিন্তু, অন্যদিকে সমুদ্রের জলে বা সমুদ্রের অভ্যন্তরে তা তেমন কোন বড়মাপের ক্ষতি করতে পারবে না বলেই অভিমত এই বিশেষজ্ঞের৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সম্পাদনা: জান্নাতুল ফেরদৌস

সংশ্লিষ্ট বিষয়