1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ফিফা বিশ্বকাপ ২০১০-এ জার্মানির অধিনায়ক ফিলিপ লাম

গোড়ালির সেই ইনজুরিই কাল হয়ে দাঁড়ালো মিশায়েল বালাকের জন্য৷ আর এতে জার্মান দল তথা সমর্থকদের মধ্যে নিদারুণ হতাশা বয়ে আনলেও, ভাগ্য খুলে গেছে লাম’এর৷ শুক্রবার দলের অধিনায়ক হিসেবে তাঁর নামই ঘোষণা করেছেন ল্যোভ৷

default

বিশ্বকাপে জার্মানির অধিনায়ক ফিলিপ লাম

জার্মান অধিনায়কের ‘আর্মব্যান্ড' চলে গেল বায়ার্ন মিউনিখ দলের ডিফেন্ডার ফিলিপ লাম'এর হাতে৷ বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে, মোট ১০টি খেলায় পুরো ৯০ মিনিট করে মাঠে থেকে রেকর্ড গড়েছেন লাম৷ তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই, অধিনায়কের তালিকায় শুক্রবার উঠে এসেছে ফিলিপ লামের নাম৷ জানিয়েছেন কোচ ইওয়াখিম ল্যোভ৷ ভাইস ক্যাপ্টেন হচ্ছেন বাস্টিয়ান শোয়াইনস্টাইগার৷

তবে লাম'ই যে জার্মান দলের অধিনায়ক হতে চলেছেন – গত দু-এক দিন ধরে এমনই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল মিডিয়ায়৷ বৃহস্পতিবার জার্মানির ‘বিল্ড' সংবাদপত্র তো একরকম ঘোষণাই করে দেয় যে, বায়ার্ন মিউনিখ'এর এই খেলোয়াড়কেই দলের অধিনায়ক হিসেবে বেছে নিচ্ছেন ল্যোভ৷ শুধু তাই নয়, গোলরক্ষক হিসেবে শালকের মানুয়েল নয়ার-এর নামও উল্লেখ করে তারা৷

অবশ্য বাস্তবে হয়েছেও তাই৷ শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধান গোলরক্ষকের নামও ঘোষণা করেন কোচ ইওয়াখিম ল্যোভ৷ নিজের প্রথম পছন্দ রেনে আডলার ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়লে, তাঁর জায়গায় মানুয়েল নয়ারকে বাছাই করেছেন তিনি৷ জাতীয় দলের হয়ে মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা থাকলেও, জার্মান যুবদলের হয়ে নাকি দারুণ পারফরম্যান্স শালকের এই গোলরক্ষকের৷

এদিকে শুধু বালাক এবং রেনেই নয়, জার্মান দলের অন্যতম মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান ট্রেশ-এর ভাগ্যেও বিশ্বকাপে খেলার সম্ভাবনা নেই৷ কারণ, ঐ একটাই৷ ইনজুরি৷ তাই বর্তমানে জার্মান দলে এমন কোনো সুপারস্টার ফুটবলারকে সেভাবে দেখা যাচ্ছে না, যাকে ঘিরে বিশ্বকাপ জয়ের আশা করতে পারে জার্মানি৷ কোচ ইওয়াখিম ল্যোভকে অগত্যা একটা ভাঙ্গাচোরা দল নিয়েই বিশ্বসেরা হওয়ার লড়াই চালাতে হবে দক্ষিণ আফ্রিকায়৷

উল্লেখ্য, শনিবার হাঙ্গেরির সঙ্গে প্র্যাকটিস ম্যাচের পর ২৩ জনের দল ঘোষণা করবে জার্মানি৷ আর আগামী ১১ই জুন থেকে শুরু হবে ফিফা বিশ্বকাপ ২০১০৷

প্রতিবেদন: দেবারতি গুহ

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়