1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ফিফার শীর্ষ পদের জন্য কাদা ছোড়াছুড়ি

দুর্নীতির অভিযোগে বিপর্যস্ত মহম্মদ বিন হাম্মাম এবার সেপ ব্লাটারের ভূমিকারও তদন্তের ডাক দিলেন৷ ব্লাটার বললেন, এমন অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগের ফলে তিনি মর্মাহত৷

Joseph Sepp Blatter, FIFA President FIFA suspends two Executive Commitee members, Press Conference on Wednesday, 20.10.2010 The Fifa executive committee members are accused of offering to sell their votes in the contest to host the 2018 World Cup ahead of December's ballot. Amos Adamu and Reynald Temarii were secretly filmed by Sunday Times reporters, who posed as lobbyists for a consortium of American companies that wanted the event to go to the US

সেপ ব্লাটার

কোনো পদে নির্বাচনের জন্য সুস্থ প্রতিদ্বন্দ্বিতা স্বাভাবিক৷ কিন্তু নির্বাচনের দিন যতই এগিয়ে আসছে, ফিফার বর্তমান প্রধান সেপ ব্লাটার ও তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী মহম্মদ বিন হাম্মামের মধ্যে সংঘাত ততই বেড়ে চলেছে৷ এই সংকটের ফলে ফিফার পরিবেশ আপাতত থমথমে৷

নৈতিকতা সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্নের ফয়সালা করতে ফিফার নিজস্ব এথিকস কমিটি রয়েছে৷ সেখানে বিন হাম্মামের বিরুদ্ধে ঘুস নেওয়ার অভিযোগের তদন্ত চলছে৷ উত্তর অ্যামরিকার ফুটবল সংগঠনের প্রধান জ্যাক ওয়ার্নারের সঙ্গে মিলে তিনি ঘুসের বদলে সদস্যদের সমর্থন পাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে৷ রবিবার তার শুনানি হবে৷ আগামী ১লা জুন ফিফার শীর্ষ পদের জন্য নির্বাচনের ঠিক আগে এমন এক অভিযোগকে বিন হাম্মাম তাঁর বিরুদ্ধে বড় এক চক্রান্ত হিসেবে দেখছেন৷ তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন বিন হাম্মাম৷ তবে অভিযোগের বয়ান উদ্ধৃত করে তিনি দাবি করেছেন, যে সেপ ব্লাটার ক্যারিবীয় ফুটবল ইউনিয়নকে অর্থ দেওয়ার কথা জানতেন, কিন্তু কিছুই করেন নি৷ তাই ব্লাটারকেও তদন্তের আওতায় আনতে হবে, বলেন হাম্মাম৷ নির্বাচনের ঠিক আগে এমন এক অভিযোগের মাধ্যমে ভাবমূর্তির ক্ষতি করার চেষ্টা চলছে বলে তাঁর অভিযোগ৷

তবে রবিবার এথিকস কমিটির সামনে দাঁড়ানোর বিষয়ে বিন হাম্মামের কোনো দুশ্চিন্তা নেই৷ ‘‘কোনো প্রশ্নের জবাব দিতে আমি ভয় পাই না৷ কমিটি যদি নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করে তাহলে আশঙ্কার কোনো কারণ নেই৷'' বলেন বিন হাম্মাম৷

মহম্মদ বিন হাম্মামের দাবির কথা শুনে ব্লাটার মর্মাহত৷ তাঁর মতে, এমন অভিযোগ এনে ফিফারই ভাবমূর্তির ক্ষতি করা হচ্ছে৷ তাছাড়া এতকালের বন্ধুত্বের পর বিন হাম্মাম এমন অভিযোগ করছেন বলে তিনি খুবই দুঃখ পেয়েছেন৷ বিন হাম্মামের বিরুদ্ধে অভিযোগের ফলেও তিনি মোটেই খুশি নন, বলেন ব্লাটার৷ তবে প্রকাশ্যে দুই শীর্ষ প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে ব্যক্তিগত রেষারেষির চিহ্ন দেখা যাচ্ছে না৷ এমনকি বৃহস্পতিবার দেখা হওয়ার পর ব্লাটার ও হাম্মাম পরস্পরকে আলিঙ্গনও করেন৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন