1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘ফাঁসি হবে না জানি, তারপরও আশায় রইলাম!’

দুই দফা পেছানোর পর জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামীর যুদ্ধাপরাধ মামলার রায় হতে যাচ্ছে বুধবার৷ জামায়াতগুরু গোলাম আযমের মৃত্যুর ছয় দিনের মাথায় এই রায় ঘোষণা হতে চলেছে৷

নিজামীর বিরুদ্ধে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, লুট, ধর্ষণ, উসকানি ও সহায়তা, পরিকল্পনা ও ষড়যন্ত্র এবং বুদ্ধিজীবী হত্যার মতো ১৬টি অভিযোগ রয়েছে৷ রায় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে আলোচনার ঝড়৷

আহমেদ রশীদ সাহয়্যার ইন ব্লগে জামায়াত সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শেথ হাসিনার মন্তব্য তুলে ধরেছেন৷ তিনি লিখেছেন,‘‘বাংলাদেশ ধর্মনিরপেক্ষতার প্রতি অঙ্গীকারাবদ্ধ৷ শেখ হাসিনা শনিবার সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরে গিয়ে সেদেশের রাজধানী আবুধাবিতে ‘গাল্ফ নিউজ'-এর সঙ্গে এক একান্ত সাক্ষাতাকারে এই অভিমত ব্যক্ত করেন৷ ধর্মীয় উগ্রপন্থা প্রচারের জন্য অভিযুক্ত জামায়াতে ইসলামী সম্পর্কে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ দলটি গত ৬০ বছরেও উপমহাদেশে উল্লেখযোগ্য রাজনৈতিক সাফল্য অর্জন করতে পারেনি৷ আমি মনে করি না যে, জামায়াত কখনও বাংলাদেশের মাটিতে শক্ত হয়ে দাঁড়াতে পারবে এবং তারা আদৌ কোনো নিরাপত্তা হুমকি সৃষ্টি করতে পারবে বলে আমি মনে করি না৷'''

আহমদ জসিম একই ব্লগে লিখেছেন,‘‘সত্যিই বড় অদ্ভুত জাতি আমরা, খুনি গোলাম আযমের জানাজাতে দেখি লাখও মানুষের অংশগ্রহণ আর বিলাপ! মানুষের কমতি দেখি না, সাঈদীর চন্দ্রভ্রমণের মতো উদ্ভট গাঁজাখুরি গল্পের উন্মাদনায়৷ সত্যিই এই ৪৩ বছরে বুর্জোয়া শাসন আমাদের নীতি নৈতিকতা, যুক্তিবোধ এতটা ধ্বংস করেছে, আলো আর কালোর পার্থক্য টুকু পযর্ন্ত আমরা করতে পারি না৷''

টুইটারে রায়ের খবরটি বেশ কয়েকজন শেয়ার করেছেন৷

বাংলাদেশের দৈনিক পত্রিকা প্রথম আলো টুইটারে নিউজ দিয়েছে৷

টুইটারে রেজওয়ান লিখেছেন, গোলাম আযমের মৃত্যুর পর বাংলাদেশ আগের চেয়ে সুন্দর৷

প্রথমআলোর ফেসবুক পেজে খবরটি প্রকাশের পর কয়েকটি মন্তব্য উঠে এসেছে৷

জসীমউদ্দীন লিখেছেন, ‘‘ফাঁসি ফাঁসি ফাঁসি চাই! ফাঁসি হবে না জানি, তারপর ও আশায় রইলাম!''

আলী রেজা রাব্বানী লিখেছেন, ‘‘আশা নয় বিশ্বাস মওলানা নিজামী নির্দোষ প্রমাণিত হবেন৷ কারণ একটা সময় ছিল যখন আওয়ামী নেতাদের কথা বিশ্বাস করে মরহুম গোলাম আযমদের কে রাজাকার মনে হতো৷ কিন্তু যখন দেখি রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য আওয়ামীরা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, এমনকি মুক্তিযুদ্ধের উপ-অধিনায়ক এ কে খন্দকারকে রাজাকার বলে, তখন আওয়ামীদেরকে আর বিশ্বাস করা যায় না৷''

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়