1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ফকল্যান্ডস নিয়ে আর্জেন্টিনা আর ব্রিটেনের মধ্যে আবার বিরোধ

ব্রিটেন নিয়ন্ত্রিত ফকল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জের অদূরে এক ব্রিটিশ তেল কোম্পানির ড্রিলিং শুরু নিয়ে আর্জেন্টিনা ও ব্রিটেনের মধ্যে টানাপোড়েন বাড়ছে৷ তাই জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন-কে হস্তক্ষেপ করার আহ্বান জানিয়েছে আর্জেন্টিনা৷

default

দক্ষিণ অ্যাটলান্টিক মহাসাগরে তেলের খোঁজে ড্রিলিং চলছে৷

এদিকে স্প্যানিশ-আর্জেন্টাইন তেল গ্রুপ রেপসল ওআইপিএফ জানিয়েছে, এ বছরের শেষে তারা বিতর্কিত ঐ দ্বীপপুঞ্জের অদূরে ফকল্যান্ডস অববাহিকায় তেল অনুসন্ধানের জন্য ড্রিলিং শুরু করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে৷

আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী হরহে তাইয়ানা জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বান কি মুন-এর সঙ্গে দেখা করে সাংবাদিকদের জানান, আর্জেন্টিনার পক্ষ থেকে মহাসচিবকে অনুরোধ করা হয়েছে তিনি যেন আরও একপেশে পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে ব্রিটেনকে জোর দিয়ে বোঝান৷

দক্ষিণ অ্যাটলান্টিকে অবস্থিত ব্রিটিশ শাসিত ফকল্যান্ডস দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে আর্জেন্টিনা আর ব্রিটেনের বিরোধ নতুন নয়৷ তবে তেল ড্রিলিং-এর বিষয়টি নিয়ে সাম্প্রতিক দিনগুলিতে দুই দেশের মধ্যে হাওয়াটা গরম হয়ে উঠছে৷ আর্জেন্টিনা এই দ্বীপপুঞ্জকে ইসলাস মালভিনাস বলে অভিহিত করে৷ এবং দাবি করে এ দ্বীপপুঞ্জ তার৷ ফকল্যান্ডস নিয়ে ১৯৮২ সালের যুদ্ধে সে ব্রিটেনের কাছে হেরে যায়৷ ১৮৩৩ সাল থেকে এই দ্বীপপুঞ্জ ব্রিটেনের দখলে৷

Argentinien Verbrennung der britischen Flagge

বুয়েনস আইরেসে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সামনে ব্রিটিশ পতাকা পোড়াচ্ছে এক বিক্ষোভকারি৷

দ্বীপপুঞ্জের সরকার তেল অনুসন্ধানের লাইসেন্স নিলাম করার পর ব্রিটিশ কোম্পানি ডিজায়ার পেট্রোলিয়াম গত সোমবার সমুদ্রে ড্রিলিং-এর কাজ শুরু করে৷ গভীর সমুদ্রে তেলের বিপুল ভান্ডার আদৌ রয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করতেই এই ড্রিলিং৷ এতে অবশ্য আর্জেন্টিনা খুশি নয়৷ এবার পাল্টা ড্রিলিং-এর পরিকল্পনার কথা জানাল স্প্যানিশ-অ্যামেরিকান তেল কোম্পানি রেপসল ওয়াইপিএফ৷ কোম্পানির একজন মুখপাত্র বলেছেন, ফকল্যান্ডস-এর বিতর্কিত সমুদ্র এলাকা থেকে বহু দূরে আর্জেন্টিনার ভূখন্ডের অন্তর্গত জলভাগে৷

আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিনা কির্শনার ইতিমধ্যে একটি ডিক্রিতে সই করেছেন৷ এর ফলে আর্জেন্টিনার সমুদ্রভাগ দিয়ে ফকল্যান্ডস দ্বীপপুঞ্জে যাওয়ার আগে যে কোন জাহাজকে অনুমতি প্রার্থনা করতে হবে৷ আর্জেন্টিনার সমুদ্র উপকূল থেকে ফকল্যান্ডস ৪৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত৷

জাতিসংঘের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মহাসচিব বান সন্তুষ্ট যে, আর্জেন্টিনা এই দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে ব্রিটেনের সাথে বিরোধ শান্তিপূর্ণভাবে মিটিয়ে ফেলতে আগ্রহী৷ জাতিসংঘে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত মার্ক লায়াল গ্র্যান্ট ফকল্যান্ডস দ্বীপপুঞ্জের উপর ব্রিটেনের সার্বভৌমত্বের কথা জোর দিয়ে বলেছেন৷

ল্যাটিন অ্যামেরিকান ও ক্যারিবিয়ান নেতারা চলতি সপ্তাহে বিরোধ দূর করতে ব্রিটেন আর আর্জেন্টিনাকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানান৷ বুয়েনস আইরেস-এর প্রতি পূর্ণ সমর্থনও তাঁরা ব্যক্ত করেন৷

প্রতিবেদক: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়