1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

প্রাতরাশ করতে গিয়ে ম্যানিংকে নিয়ে গান শুনলেন ওবামা

সান ফ্রান্সিসকোতে নির্বাচনী তহবিলে টাকা তুলতে প্রাতরাশ করতে গিয়েছিলেন ওবামা৷ সেখানেই ম্যানিং-এর মুক্তির দাবিতে বেশ বিব্রতকর গানের সামনাসামনি হলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট৷

default

‘ফান্ডরেজিং’ বা অর্থ সংগ্রহে বেশ পারদর্শী ওবামা

সামনের বছর ফের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন৷ দ্বিতীয়বার জিততে গেলে বারাক ওবামাকে তার জন্য অনেকটা পথই হাঁটতে হবে৷ অতএব নির্বাচনী তহবিল ভরার কাজে উঠেপড়ে লেগেছেন তিনি৷ সেই কাজেই সান ফ্রান্সিসকোতে এ সপ্তাহে এক প্রাতরাশের আসরে হাজির ছিলেন তিনি৷ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্রাতরাশের যে আসরে ঢোকার প্রবেশমূল্য ছিল মাথাপিছু ৩৫,৮০০ ডলার৷ তো, সেখানেই এক যুবতী হঠাৎ বলে বসে ‘মি. প্রেসিডেন্ট, আপনাকে একটা গান শোনাতে চাই৷' তারপর সে নিজের জ্যাকেট খুলে ফেলে৷ তলায় ছিল কালো টি-শার্ট৷ যাতে লেখা ব্র্যাডলি ম্যানিং-এর মুক্তি চাই৷ শুরু হয় গান, যে গানে ওবামার সিদ্ধান্তকে ব্যাপক হারে ব্যঙ্গ করা হয়েছে৷

Bradley Manning

কারাবন্দি ব্র্যাডলি ম্যানিং

২০১০ সালের জুলাই মাস থেকে মার্কিন সেনাবাহিনীর গোয়েন্দাবিভাগের অফিসার ব্র্যাডলি ম্যানিং-কে উইকিলিকসের কাছে তথ্য পাচারের অপরাধে জেলবন্দি করা হয়েছে৷ লম্বায় ছয় ফুট আর চওড়ায় বারো ফুট একটি কারাগারে ম্যানিং বন্দি৷ তাঁকে জোর করে নগ্ন হয়ে ঘুমোতে বাধ্য করা হচ্ছে৷ সে সবই ওই গানে বলেছেন যুবতীটি৷ সামাজিক দায়বদ্ধতার প্রশ্ন তুলেছেন প্রেসিডেন্টের সামনে৷ সম্পূর্ণ ব্যাপারটাই ওবামাকে নিতে হয়েছে একেবারে সরাসরি৷ দৃশ্যতই তাঁকে বেশ বিব্রত দেখিয়েছে৷

সেন্ট রেগিজ হোটেলে প্রাতরাশের আসরে পুরো গানটা শোনার পর ওবামার একটিই মন্তব্য ছিল, ‘দিব্যি গান৷'

গায়িকা এবং তাঁর আরও দুই টেবিল সঙ্গীকে এই গানের পর অবশ্য সেই আসরে আর থাকতে দেয়নি কর্তৃপক্ষ৷ কিন্তু গানের মাধ্যমে নিজেদের প্রতিবাদ আর দাবি, দুটোই জানিয়ে দিয়ে গেছেন তিনি৷ আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বারাক ওবামাকে অন্য অনেক কিছুর মতই এই উইকিলিকস বিষয়ক সমস্যা যে পোহাতে হবে, তার প্রমাণটা কিন্তু বেশ আগেই মিলল৷ ২০১২ সালের নভেম্বর মাস আসার অনেক অনেক আগে৷

প্রতিবেদন : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা : সঞ্জীব বর্মন