1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

পোলিও: নতুন করে শঙ্কা জাগাচ্ছে পাকিস্তান

তালেবান নিয়ন্ত্রিত এলাকায় বিমান হামলার কারণে পাকিস্তানের উত্তর ওয়াজিরিস্তান থেকে প্রায় ৫০ হাজার লোক সীমান্ত পেরিয়ে আফগানিস্তানে ঢুকে পড়ায় নতুন করে পোলিও ছড়ানোর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে৷

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, পাকিস্তান থেকে পোলিও ভাইরাস আফগানিস্তানে ছড়ালে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশেও এ রোগ ফিরে আসতে পারে৷ এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের স্বাস্থ্যকর্মীরা ওয়াজিরিস্তানের কয়েকটি এলাকায় শিশুদের জরুরি ভিত্তিতে টিকা দেয়া শুরু করেছে৷

জাতিসংঘের এই সংস্থাটি গত মার্চে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ১১টি দেশকে পোলিওমুক্ত ঘোষণা করে৷ তবে বিশ্বের যে তিনটি দেশে এখনো পোলিওর প্রাদুর্ভাব রয়েছে তার মধ্যে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানও আছে৷

বিশ্ব থেকে পোলিও নির্মূলের চেষ্টায় একের পর এক রাষ্ট্র সাফল্য পেলেও উত্তর ওয়াজিরিস্তানে তালেবান ও স্থানীয় জঙ্গি নেতাদের হামলা ও হুমকির কারণে ২০০২ সালের পর আর টিকাদান কর্মসূচি চালাতে পারেনি পাকিস্তান৷

চলতি বছর এ পর্যন্ত সারা বিশ্বে মোট ১০৩টি শিশুর দেহে পোলিও ধরা পড়েছে, যার মধ্যে ৮২টিই পাকিস্তানে৷ এর মধ্যে ওয়াজিরিস্তানে পোলিও ধরা পড়েছে ৫০টি শিশুর দেহে৷

জাতিসংঘ বলছে, জঙ্গি নির্মূলে চলতি মাঝের মাঝামাঝি সময়ে ওই এলাকায় বিমান হামলা শুরু করার পর থেকে অন্তত চার লাখ ৩৫ হাজার পাকিস্তানি নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ঘর-বাড়ি ছেড়ে গেছে৷ এদের মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ঢুকে পড়েছে আফগানিস্তানে৷ ফলে পাকিস্তান থেকে নতুন করে পোলিও ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে৷

পাকিস্তানের বান্নু জেলার স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আকবর জান জানান, যে শিশুরা পরিবারের সঙ্গে ওই এলাকা ত্যাগ করছে বা নতুন আসছে, তাদের সবাইকে টিকা দেয়া হচ্ছে৷ সরকার প্রাথমিকভাবে ২ লাখ শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানোর লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে৷

পোলিও টিকা কর্মসূচি বন্ধ করতে তালেবান জঙ্গিদের পক্ষ থেকে গত কয়েক বছরে নানা ধরনের গুজব ছড়ানো হয়েছে৷ এই টিকায় শূকরের রক্ত রয়েছ, অথবা টিকা দিলে সন্তানের এইডস হবে – এমন সব গুজব ছড়ানোর পাশাপাশি টিকা দিলে জবাই করারও হুমকি দিয়েছে জঙ্গিরা৷ তাদের হামলায় টিকা কর্মসূচির বেশ কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মীও নিহত হয়েছেন৷

গত কয়েক দিন ধরে বান্নু জেলার তানচি বাজার এলাকায় টিকা কর্মসূচিতে থাকা স্বাস্থ্যকর্মী সুমাইলা খান জানান, তাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রায় ৩০০ শিশুকে টিকা দিয়েছেন৷ এ পর্যন্ত কেউ তাঁদের বাধা না দিলেও গুজবের কারণে অনেক অভিভাবককে বোঝাতে বেগ পেতে হয়েছে৷

‘‘অনেক অভিভাবক বলেছেন, এই টিকা খেলে বাচ্চারা বড় হয়ে আর সন্তান জন্ম দিতে পারবে না বলে তালেবান জঙ্গিরা প্রচার চালিয়েছে৷ তাদের দাবি, মুসলমানদের সংখ্যায় কমাতে এটা আমেরিকার ষড়যন্ত্র৷''

উত্তর ওয়াজিরিস্তান থেকে পালিয়ে আসার পর আরো কয়েকটি পরিবারের সঙ্গে একটি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছেন ৩৫ বছর বয়সি শারীফ জামান৷ তিনি জানান, তালেবান বলেছিল টিকা দিলে তাঁর ছেলে-মেয়েদের মৃগী রোগ হবে৷ তারপরও তিনি নিজের পাঁচ ছেলেমেয়কে টিকা খাওয়াতে দিয়েছেন৷

গত মে মাসের শুরুতে নতুন করে পোলিও সংক্রমণের কয়েকটি ঘটনা ধরা পড়ার পর সতর্কতা জারি করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডাব্লিউএইচও৷ এরপর পাকিস্তান সরকার বিদেশ যাত্রার ক্ষেত্রে নাগরিকদের পোলিও টিকার সনদ দেখানো বাধ্যতামূলক করে৷

জেকে/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন