1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘পেশাদারিত্বে আস্থা রাখুন, আবেগ নিয়ে খেলবেন না'

রাশিয়ার দাবি, সিরিয়া তাদের এমন তথ্য দিয়েছে যা দেখে বোঝা যায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে মানুষ হত্যা করেছে বিদ্রোহীরা৷ অথচ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা বলছেন, জাতিসংঘের রিপোর্টে রয়েছে আসাদ বাহিনীর হামলা চালানোর প্রমাণ৷

সিরিয়া নিয়ে কথার লড়াই চলছেই৷জাতিসংঘের স্থায়ী পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিরা বৈঠকে বসেছেন৷ ব্রিটেন, চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া আর যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের এ বৈঠক থেকে যে একদিনে ফলপ্রসূ কিছু বেরিয়ে আসবে না, তা বুঝতে পেরে বুধবার আবার আলোচনা হবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি-মুন৷ সবাইকে একতাবদ্ধ হয়ে সিরিয়া সংকট নিরসনের চেষ্টা করার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি৷

তবে ঐক্যের কোনো লক্ষণ এখনো দেখা যায়নি৷ রাশিয়া আর যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা এখনো দুই মেরুতে৷ সিরিয়া সফররত রুশ উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকভ জানিয়েছেন, সিরিয়ার কাছ থেকে এমন তথ্য পেয়েছেন যা দেখে পরিষ্কার বোঝা যায়, ২১ আগস্ট দামেস্কের কাছে যে রাসায়নিক অস্ত্রের হামলা হয়েছিল তার পেছনে বিদ্রোহীরাই ছিল৷ দামেস্কে সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ আল-মুয়াল্লেমের সঙ্গে বৈঠকের পর এ কথা বলেন তিনি৷

এদিকে সেই হামলা সম্পর্কে জাতিসংঘের তদন্ত প্রতিবেদনকে ‘একপেশে' বলে মন্তব্য করেছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভারভ৷ তিনি বলেছেন, প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হামলা হয়েছে, কিন্তু কারা তা পরিচালনা করেছে সে সম্পর্কে কিছু বলা হয়নি৷ যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিডেন্ট বারাক ওবামা তা মনে করেননা৷ মঙ্গলবার তিনি বলেছেন, প্রতিবেদনে হামলায় সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অনুগত বাহিনীর জড়িত থাকার স্পষ্ট ইঙ্গিত রয়েছে৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়