1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘পৃথিবীর কান্না শুনুন, গরিবের কান্না শুনুন'

পরিবেশ বিষয়ে শিক্ষা নথি প্রকাশ করেছে ভ্যাটিকান৷ পোপ ফ্রান্সিস উষ্ণায়নের জন্য অসম আর্থিক ব্যবস্থাকে দায়ী করে এর সমালোচনা করেছেন৷ তাঁর বক্তব্য পরিবেশবিদ, ধর্মীয় চিন্তাবিদ, রাজনীতিবিদসহ প্রায় সব মহলেই প্রশংসিত হচ্ছে৷

বৃহস্পতিবার পরিবেশ নিয়ে প্রথম বারের মতো একটি এনসাইক্লিক্যাল প্রকাশ করেছে ভ্যাটিকান৷ সেখানে পোপ ফ্রান্সিস বিশ্বের সকল ধর্মের, সকল বর্ণের মানুষের প্রতি জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টিকে নৈতিকতাসংশ্লিষ্ট বিষয় হিসেবে ভাবা এবং দেখার আহ্বান জানিয়েছেন৷ ‘লাউডাটো সি'-নামের শিক্ষানথিতে তিনি বিশ্বের সব মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‘আপনারা পৃথিবীর কান্না শুনুন, গরিবের কান্না শুনুন৷''

সমাজের এক শ্রেণির মানুষের বিলাসবহুল জীবনযাপন, সব কিছুতে অতি লাভের লোভ বিশ্বকে ক্রমশ আবর্জনার স্তূপে পরিণত করছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি৷ জলবায়ু পরিবর্তনের সংকট মোকাবিলায় সবাইকে তৎপর হওয়ার আহ্বান জানিয়ে পোপ বলেছেন,

Vatikan Papst Franziskus Enzyklika veröffentlicht

পোপ ফ্রান্সিসের ‘লাউডাটো সি' পড়ছেন এক সন্যাসিনী

‘‘আমরা গত দু'শ বছরে আমাদের আবাসস্থলকে যত আঘাত দিয়েছি, তার সঙ্গে যত দুর্ব্যবহার করেছি, তার আগে কখনো এতটা হয়নি৷ এই পৃথিবী আমাদের ঘর, যতদিন যাচ্ছেই এই ঘর দেখতে ততই আরো অতিকায় আবর্জনার স্তূপের মতো হয়ে যাচ্ছে৷''

পরিবেশবিদরা পোপ ফ্রান্সিসের বক্তব্যের অকুণ্ঠ প্রশংসা করেছেন৷ রাজনীতি বিশ্লেষকরাও মনে করছেন, ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের সর্বোচ্চ ধর্মগুরুর এই বক্তব্য পরিবেশের ক্ষেত্রে কাঙ্খিত পরিবর্তনকে সহজ করবে৷ তবে রক্ষণশীল ক্যাথলিক এবং যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিক দলের একটি অংশ এর সমালোচনা করেছেন৷ এক রিপাবলিকান নেতা মনে করেন, ‘‘এটা পুরোপুরি রাজনৈতিক বিষয়৷'' তাঁর মতে, পরিবেশ রক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তন – এ সব এখন পুরোপুরি রাজনৈতিক ইস্যু হয়ে গেছে, এতে ধর্মগুরুর বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয়৷ বিশ্বের অনেক পরিবেশবিজ্ঞানী এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষকই অবশ্য তা মনে করেন না৷

এসিবি/ডিজি (এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন