1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পৃথিবীতে ফিরেছেন জার্মানির গেয়ার্স্টসহ তিন নভোচারী

মহাকাশে ১৬৫ দিন কাটানোর পর রাশিয়ার মাক্সিম সুরাইয়েভ ও অ্যামেরিকার রিড ওয়াইজম্যানের সঙ্গে পৃথিবীতে ফিরেছেন জার্মান নভোচারী আলেক্সান্ডার গেয়ার্স্ট৷ সোমবার ভোরে মহাকাশযান সোইয়ুজ তাঁদের নিয়ে কাজাখস্তানে অবতরণ করে৷

কাজাখস্তানে সোইয়ুজ থেকে বেরিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গেই তিন নভোচারীকে কম্বলে জড়িয়ে দেয়া হয়৷ ভূপৃষ্ঠে পা রাখার কিছুক্ষণ পর এক টেলিভিশন চ্যানেলকে রুশ ভাষায় গেয়ার্স্ট বলেন, ‘‘সার্বিক সহায়তার জন্য সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ৷''

আইএসএস-এ গিয়ে কাজ করা জার্মানির একাদশতম মহাকাশচারী গেয়ার্স্ট আইএসএসে পৌঁছানোর পর থেকেই টুইটারে নিজের নানান অভিজ্ঞতার কথা লিখে আসছিলেন৷ ৩৮ বছর বয়সি গেয়ার্স্ট সোমবার জার্মানির কোলন শহরে ফিরবেন৷ বন শহরের পাশের শহর কোলনে তাঁর অপেক্ষায় আছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা৷

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন আইএসএসে ১৬৫ দিন থাকার ফলে তাঁর শরীরের কী অবস্থা হয়েছে চিকিৎসকরা তা পরীক্ষা করে দেখবেন৷ মহাকাশে দিনগুলো কেমন কেটেছে গেয়ার্স্ট তা জানাবেন আগামী বৃহস্পতিবার৷ সেদিন এক সংবাদ সম্মেলনে তাঁর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়ার কথা৷

মূলত আগ্নেয়গিরি বিশেষজ্ঞ গেয়ার্স্ট আইএসএসে তাঁর প্রথম অভিযানে আরেকটি অনন্য কৃতিত্বের অংশীদার হয়েছেন৷ গতমাসে যুক্তরাষ্ট্রের রিড ওয়াইজম্যানের সঙ্গে ‘স্পেসওয়াক' করেছেন তিনি৷ এর ফলে ‘স্পেসওয়াক' করা তৃতীয় জার্মান নভোচারী এখন আলেক্সান্ডার গেয়ার্স্ট৷

১৬৫ দিনের অভিযানে আইএসএসে কমান্ডার, অর্থাৎ নেতৃত্বের ভূমিকায় ছিলেন রাশিয়ার নভোচারী মাক্সিম সুরাইয়েভ৷ তিনি জানান, বিভিন্ন কাজে যখনই দায়িত্ব বণ্টনের এবং নেতৃত্বের প্রশ্ন এসেছে তাঁরা তখন সৌহার্দ্যকে অটুট রাখার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ এর ফলে কখনো কোনো মনোমালিন্য হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি৷ তাঁদের এই দৃষ্টান্তকে ‘অনুকরণীয়' হিসেবে বর্ণনা করে সুরাইয়েভ বলেন, ‘‘আমরা প্রত্যেকটা কাজ করেছি সহযোগিতার মনোভাব ধরে রেখে৷ আমি মনে করি, সবারই এখান থেকে কিছু শেখা উচিত এবং আইএসএস ক্রুদের দেখানো এই দৃষ্টান্ত অনুসরণ করা উচিত৷ ''

এসিবি/জেডএইচ (ডিপিএ, এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন