1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পৃথক তেলেঙ্গানা রাজ্য গঠন ইস্যুতে নতুন আন্দোলন

অন্ধ্রপ্রদেশকে বিভক্ত করে পৃথক তেলেঙ্গানা রাজ্য গঠন সংক্রান্ত শ্রীকৃষ্ণ কমিটির রিপোর্টের সুপারিশ প্রকাশিত হবার পর আজ রাজ্যে নতুন করে দেখা দেয় ছাত্র বিক্ষোভ৷ রিপোর্টে ৬টি প্রস্তাব দেয়া হয়, তারমধ্যে তিনটি রূপয়নযোগ্য৷

default

পৃথক তেলেঙ্গানা রাজ্য গঠন নিয়ে বিক্ষোভ চলছে বেশ কিছুদিন ধরেই

পৃথক তেলেঙ্গানা রাজ্য গঠনের বিষয়ে শ্রীকৃষ্ণ কমিটির রিপোর্টের সুপারিশ প্রকাশিত হবার সঙ্গে সঙ্গে অন্ধ্রপ্রদেশের ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নতুন করে শুরু হয় ছাত্রদের প্রতিবাদ বিক্ষোভ৷ ছাত্ররা পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর বৃষ্টি করলে তাতে কয়েকজন পুলিশ আহত হয়৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে৷ আগামীকাল রাজ্যে হরতাল ডাকা হয়েছে৷

রিপোর্টের সুপারিশ নিয়ে রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যেও দেখা দেয় তীব্র প্রতিক্রিয়া৷ তাদের মতে রিপোর্টের সুপারিশ পৃথক রাজ্যের ইস্যুকে আরো জটিল করে তুলেছে৷ এই রিপোর্টের ফলে রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলির কোর্টে কেন্দ্র বল ঠেলে দিয়েছে৷ পৃথক তেলেঙ্গানা আন্দোলনের প্রধান দল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি সংক্ষেপে টিআরএস এবং বিজেপি সরাসরি রিপোর্ট খারিজ করে দিয়েছে৷ টিআরএস বলেছে, পৃথক তেলেঙ্গানা ছাড়া অন্য কোন সমাধান তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়৷ কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত বাজেট অধিবেশনে এই সংক্রান্ত বিল সংসদে পেশ করা৷

Indien Hyderabad

ওসমানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নতুন করে শুরু হয় ছাত্রদের প্রতিবাদ

পৃথক তেলেঙ্গানা রাজ্য ইস্যুতে শ্রীকৃষ্ণ কমিটি যে ৬টি বিকল্প সমাধানের সুপারিশ করেন তারমধ্যে তিনটি সুপারিশ সহজে বাস্তবায়নযোগ্য বলে মনে করেন কমিটি৷ আজ নতুনদিল্লিতে কমিটির রিপোর্ট নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে আলোচনার পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি. চিদাম্বরম বলেন, প্রত্যেক প্রস্তাবের ভালমন্দ সবদিক বিবেচনা করে মতামত দিয়েছেন কমিটি৷ রাজনৈতিক দল, গোষ্ঠী ও ব্যক্তিবিশেষের উচিৎ হবে রিপোর্টট ভালভাবে পড়ে দেখে তাদের মত জানানো৷ তারপর এমাসের কোন একদিনে আবার মিলিত হয়ে সকলের সহযোগিতা সাপেক্ষে চূড়ান্ত সমাধানে আসা৷

শ্রীকৃষ্ণ কমিটির সুপারিশগুলি কী ? এক, বর্তমান স্থিতাবস্থা বজায় রেখে হয় মুখ্যমন্ত্রী কিংবা উপ-মুখ্যমন্ত্রী হবেন তেলেঙ্গানা থেকে৷ অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা এবং অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য স্থিতাবস্থাই শ্রেয়৷ দুই, অন্ধ্রপ্রদেশকে সীমান্ধ্রা ও তেলেঙ্গানা অঞ্চলে বিভাজিত করা এবং হায়দ্রাবাদ হবে কেন্দ্রীয় শাসনাধীন৷ পরে দুই রাজ্যের পৃথক রাজধানী হবে৷ তিন, অন্ধ্রপ্রদেশকে রায়াল তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্র উপকূল এলাকায় ভাগ করা৷ হায়দ্রাবাদ যাবে রায়াল তেলেঙ্গানায়৷ চার, সংযুক্ত রাজ্যের জন্য থাকবে বিশেষ সাংবিধানিক সংস্থান তাতে আর্থ-সামাজিক ও রাজনৈতিক দিক থেকে তেলেঙ্গানা আঞ্চলিক পরিষদ গঠনের সুযোগ থাকবে৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক