1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

পুলিশের ওপর হামলার দায়ে কিশোরীর কারাদণ্ড

তথাকথিত জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস-এর হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালানোয় এক কিশোরীর ৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে জার্মান আদালত৷ মামলার রায়ে বলা হয়, মেয়েটি আইএস-এর হয়ে পুলিশ হত্যা করে ‘শহিদ' হতে চেয়েছিল৷

২০১৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি হানোফারের প্রধান রেল স্টেশনে এক পুলিশ কর্মকর্তার ঘাড়ে শবজি কাটার ছুরি দিয়ে কোপ দেয় সাফিয়া এস. নামের এক কিশোরী৷ তখন সাবিহার বয়স ছিল ১৫ বছর৷ পেছন থেকে আকস্মিকভাবে চালানো হামলায় ৩৪ বছর বয়সি ঐ পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যুর আশঙ্কাও দেখা দিয়েছিল৷ তবে এখন তিনি সুস্থ৷

পুলিশের ওপর হামলার দায়ে গ্রেপ্তার হওয়ার পর সাবিহা চিঠি লিখে কৃতকর্মের জন্য আহত পুলিশ কর্মকর্তার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন৷ তারপরও বুধবার সেলে-র স্থানীয় আদালত তাকে ছয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে৷

আদালত জানিয়েছে, সাফিয়া যে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট বা আইএস-এর হয়ে ঐ হামলা চালিয়েছিল, তার টেলিফোন কথোপকথন থেকেই সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে৷ হামলার আগের সেই কথোপথনে সাফিয়া পুলিশ হত্যা করে শহিদ হতে চেয়েছিল বলেও জানানো হয়৷

সাফিয়ার আইনজীবীরা মনে করেন, বয়স এবং অপরাধ অনুপাতে আদালতের দেয়া শাস্তি অনেক কঠিন হয়েছে৷ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন বলেও জানিয়েছেন তাঁরা৷ সাফিয়ার পক্ষের আইনজীবীরা বলছেন, তাঁদের মক্কেলের সঙ্গে আইএস-এর কোনো সম্পর্ক ছিল না৷ তাঁদের যুক্তি, আইএস-এর হয়ে যারা হামলা করে তারা কখনো ক্ষমা চায় না, কিন্তু সাফিয়া ক্ষমা চেয়েছে৷

অন্যদিকে পুলিশ বলছে, সাফিয়া আগে থেকেই আইএস-এর সঙ্গে যোগাযোগ রেখে আসছিল৷ ২০১৫ সালে আইএস-এ যোগ দেয়ার জন্য সিরিয়া রওনা হয়েছিল সে৷ কিন্তু ইস্তানবুলে পৌঁছানোর পরই তার মা গিয়ে তাকে ধরে নিয়ে আসেন৷

এসিবি/ডিজি (রয়টার্স, ইপিডি, ডিপিএ, কেনএ)

বিষয়টি নিয়ে আপনার কিছু বলার থাকলে লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়