1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পুলিশের অভিযানও থামাতে পারেনি ইউক্রেনের বিক্ষোভ

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধানের সফর চলার সময়ই বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা চালিয়েছে ইউক্রেনের পুলিশ৷ কিছু কিছু স্থান থেকে বিক্ষোভকারীদের সাময়িকভাবে সরিয়ে দিলেও তাতে সংকট নিরসন হয়নি৷

প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে বিক্ষোভ চলছে ইউক্রেনে৷ সরকার ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ-র সঙ্গে একটি বাণিজ্য ও সহযোগিতা চুক্তি করতে অস্বীকৃতি জানালে রাস্তায় নেমে আসে বিরোধী দলের হাজার হাজার বিক্ষুব্ধ সমর্থক৷ ইইউ-এর ক্রমাগত আহ্বানের পরও দেশটিতে এখনো শান্তি ফেরেনি৷ সোমবার রাজধানী কিয়েভে বিক্ষোভরত বিরোধী দলের সমর্থকদের হঠানোর উদ্যোগ নিয়েছিল পুলিশ৷ প্রচণ্ড শীত উপেক্ষা করে ইইউ-ইউক্রেন সম্পর্ক অটুট রাখার দাবিতে রাস্তায় নামা কয়েক হাজার বিক্ষুব্ধ মানুষকে হঠানোর জন্য বুধবার আবার অভিযানে নামে পুলিশ৷ পুলিশের এ অভিযানের পরও সমাবেশস্থল থেকে মাইকে শান্তি বজায় রাখা এবং সংঘর্ষে লিপ্ত না হবার আহ্বান জানানো হয়৷ অনেক জায়গা থেকে বিক্ষোভকারীরা সরে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন৷ এর আগে ইইউর পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন এবং জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিডো ভেস্টারভেলে ইউক্রেন সরকারকে বিক্ষোভকারীদের ওপর দমন-পীড়ন না চালানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন৷ তারপরও পুলিশ এ অভিযান চালায়৷

তবে রয়টার্স জানিয়েছে রাজধানী কিয়েভের ইনডিপেনডেন্স স্কয়ারে এখনো বিক্ষোভ সমাবেশ চলছে৷ সমাবেশ স্থল থেকে পুলিশের প্রতি আক্রমণ না চালানোর এবং বিক্ষোভকারীদের শান্ত থাকার আহ্বান জানানো হয়েছিল৷ এ পর্যায়ে ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, সমাবেশস্থলে পুলিশ হামলা চালাবে না৷ সেখানে তাই আগের মতোই বিক্ষোভ চলছে৷ শেষ খবর অনুযায়ী, পুলিশ ইনডিপেনডেন্স স্কয়্যার এবং সিটি হল প্রাঙ্গণ থেকে ফিরে গেছে৷

এমন পরিস্থিতেই সংকট নিরসনের জন্য দু দিনের সফরে ইউক্রেন যান ইইউর পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন৷ প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ইয়ানুকোভিচের সঙ্গে তাঁর সাড়ে তিন ঘণ্টার বৈঠক হয়েছে৷ অ্যাশটনের মুখপাত্র জানান, বৈঠকে যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে৷

এদিকে বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সকে উদ্ধৃত করে রয়টার্স জানিয়েছে, ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী মিকোলা আজারভ সংকট নিরসনের জন্য ইইউর কাছে ২০ বিলিয়ন ডলারের আর্থিক সহায়তা দাবি করেছেন৷ এর আগে সরকার বিরোধীদলের সঙ্গে বৈঠকে বসেও অচলাবস্থা নিরসনের প্রস্তাব দিয়েছিল৷ কিন্তু বিরোধী দল জানায়, সরকার আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দিলেই কেবল এ প্রস্তাবে সাড়া দেয়া সম্ভব৷

এসিবি / জেডএইচ (রয়টার্স, এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়