1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘পুলিশদের কি শরম বলে কিছু আছে?'

সম্প্রতি পুলিশ এক নোটিশে জানায়, নাটক, সিনেমায় পুলিশকে ‘নেতিবাচক ও হাস্যকরভাবে' উপস্থাপন করায় আইনের শাসন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে৷ এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ডয়চে ভেলের ফেসবুক বন্ধুরা৷

বেশ কয়েকজন পাঠক পুলিশের বক্তব্যকে সমর্থন করলেও বেশিরভাগই একমত হতে পারেননি৷ ডয়চে ভেলে বাংলার ফেসবুক পাতায় মো. সাহাদাত হোসেন বিপ্লব লিখেছেন, ‘‘সিনেমা-নাটকে যা দেখানো হয় বাস্তবে পুলিশদের কর্মকাণ্ড তার চেয়েও বেশি হাস্যকর৷'' জুয়েল মনে করেন নাটক, সিনেমায় পুলিশকে যেভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে সেটা ঠিকই আছে৷ সালাউদ্দিনও তা-ই মনে করেন৷ নাটক, সিনেমার মাধ্যমে পুলিশের কুকর্ম জনগণ জানতে পারছে বলে খুশি দেলোয়ার হোসেন৷

এদিকে, সারোয়ার হোসেন লিখেছেন, ‘‘আইনের শাসন কখনো ছিলই না৷ প্রতিষ্ঠাতো কল্পনা মাত্র!'' কাজি আশরাফের মন্তব্য, ‘‘এর চেয়েও বেশি খারাপ পুলিশ, ঘুষ ছাড়া কিছুই বোঝেনা৷'' মো. ইমরান আলীর মতে, ‘‘পুলিশে কোনো সৎ লোক নাই, সবাই নাকি অসৎ৷'' মো. মিলন চৌধুরী বলছেন, ‘‘দেশেতো কোন আইনই নাই৷''

সাহাদাত তাঁর মতামত জানিয়েছেন এভাবে, ‘‘নাটক সিনেমায় পুলিশের ব্যবহারের জন্য আইনের শাসন বিঘ্নিত হয়!!!! এটাই তো হাস্যকর!''

মান্না লিখেছেন, ‘‘ওরা তো হাসির পাত্র, ওদের আচার ব্যবহার যদি সুন্দর আর মার্জিত হতো তবেতো তারা সম্মান পাবে৷ ওদের শরম বলে কিছু আছে?'' নবিউল ইসলামের মতও অনেকটা পাঠক মান্নার মতো৷ তাঁর মন্তব্য, ‘‘চোরকে, চোর বলবে না তো কি সাধু বলবে?''

মামুন রানা বলেন, ‘‘পুলিশ এখন সন্ত্রাসী, তারা ভাড়া করা কিলার এবং তারা অবাধে মানুষ খুন করছে৷'' ইশহাক বাবুর কথা, ‘‘যেদেশে রক্ষকই ভক্ষক, সেদেশে আবার কিসের আইনে কথা?''

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন