1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

পুরস্কার হাতে পেয়েও যাকে ফেরত পাঠাতে হলো

ডয়চে ভেলের পাঠানো আইপডটি হাতে পেয়েও তা ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছেন এক বিজয়ী বন্ধু৷ তাঁর ভাষায়, ‘‘ডাক বিভাগ ১০৪৪ টাকা শুল্ককর ধরার কারণে বাধ্য হয়েই আইপডটি ফেরত পাঠিয়েছি৷''

বিজয়ী এই বন্ধু সাবিনা জামানের অনুরোধ, এরপর যেন শুল্ককর বা ভ্যাট ছাড়া পুরস্কার পাঠানো হয়৷ সাবিনার পুরো ঠিকানা, স্বামী মো. নুরুজ্জামান, বাদাউচ্চ, পাঁচগ্রাম, কালাই, জেলা জয়পুরহাট, বাংলাদেশ৷

- বোন সাবিনা, আপনার মনের অবস্থা আমরা খুব ভালোভাবেই বুঝতে পারছি৷ কিন্তু আমরা যে এ ব্যাপারে একেবারেই নিরুপায়৷ কারণ ব্যাপারটি পুরোপুরি বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ৷ দেখুন, গত কয়েক মাসে আমাদের পাঠানো মূল্যবান আইপড বিজয়ী বন্ধুরা কোনোরকম শুল্ককর ছাড়াই হাতে পেয়েছেন৷ আবার অন্যদিকে কেউ কেউ জানিয়েছেন যে, সামান্য একটি এলটা রেডিও হাতে পেতেও তাঁদের ৬০০ টাকা ডাকপিওনের হাতে তুলে দিতে হয়েছে৷ এ বিষয়ে যে কথাটি না বললেই নয়, তা হচ্ছে, ডয়চে ভেলে যে জিনিসই পাঠাক না কেন, তার কোনো ব্যবসায়িক মূল্য নেই৷ সেগুলো শুধুই পুরস্কার৷ তাই এ সব জিনিসের ওপর শুল্ককর নেওয়ার কথা নয়৷ তাছাড়া জার্মানি থেকে কোনো কিছু পাঠানো হয়ে গেলে তারপর আর আমাদের কিছুই করার থাকে না৷

এরপর এটা পুরোপুরি বাংলাদেশের ব্যাপার৷ আমাদের মনে হয়, বাংলাদেশের এ সব বিষয় আপনি আমাদের চেয়ে ভালো জানেন৷ এক্ষেত্রে আমাদের দুঃখ প্রকাশ করা ছাড়া আর কিছুই করার নেই৷ আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত যে, আপনার প্রাপ্য পুরস্কারটি হাতে পেয়েও ফেরত পাঠাতে হলো৷ একেই বোধহয় বলে দুর্ভাগ্য! বলা বহুল্য, অতীতে এই ব্যাপারে ডয়চে ভেলে বাংলাদেশের ডাক বিভাগের সাথে কথা বললেও কোনো আশানুরূপ ফল হয়নি৷ বোন সাবিনা, আপনাকে বলবো, আপনি আইপড ফেরত পাঠিয়ে ঠিক কাজই করেছেন, কারণ পুরস্কার টাকা দিয়ে কেনার কোনো যুক্তি নেই!

পরের ই-মেলটি পাঠিয়েছেন মো. নুরুজ্জামান ইসলাম মাদু, বাদাউচ্চ, পাঁচগ্রাম, কালাই, জয়পুরহাট, বাংলাদেশ থেকে৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘আমি ডায়াবেটিস-এর ভয়ে মিষ্টি কম খাই৷ তবে এবার আপনাদের ‘ভুল ধারণা শুধরে নিন' প্রতিবেদনটি পড়ে নিজেকে শুধরে নিলাম৷'' এছাড়াও আমাদের সকলকে হেমন্ত ও নবান্নের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পুরনো এই বন্ধু৷ এখানে জিনিয়ে রাখি, মো. নুরুজ্জামান ডিডাব্লিউ রেডিও-র পুরনো শ্রোতা ছিলেন৷ তবে এখন তিনি ওয়েবসাইটের পাঠক এবং ফেসবুক-ফ্রেন্ড৷

- ধন্যবাদ আপনাদের৷ অন্য বন্ধুরাও লিখবেন কিন্তু! অপেক্ষায় রইলাম৷ সবার জন্য রইলো অনেক অনেক শুভেচ্ছা৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন