1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘পিস টিভি বন্ধ করলে নাকি জঙ্গিবাদ আরো বাড়বে'

জঙ্গি তৎপরতায় উদ্বুদ্ধ হওয়ার মতো উপাদান পিস টিভিতে থাকে বলে ধারণা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর৷ তবে ডয়চে ভেলের অনেক ফেসবুক বন্ধুই কিন্তু মনে করেন, পিস টিভির সাথে জঙ্গি তৎপরতার কোনো সম্পর্ক নেই৷

যেমন পাঠক পিয়াল মনে করেন, বিপথে মানুষ বহুপথেই যেতে পারে৷তাই বলে যে, ‘‘পিস টিভিতে জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনে কেউ জঙ্গি হওয়ায় উদ্বুদ্ধ হতে পারে৷'' পিস টিভি বন্ধ করে দেওয়াটা খুবই হাস্যকর বলে মনে করেন পাঠক সমির পিয়াল৷ পিয়ালের প্রশ্ন, অনেক ধার্মিক বা রুচিসম্পন্ন শিক্ষিত মুসলমান পিস চ্যানেল দেখেন, তাহলে কি তারাও জঙ্গি ?

আর এমএ জলিল আহমেদের বক্তব্য এরকম, ‘‘যখন পিস টিভি ছিল না, তখন কি জঙ্গি, সন্ত্রাসী পৃথিবীতে ছিল না? মেনে নিলাম, জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনে কেউ নাকি জঙ্গি কাজে অনুপ্রাণিত হয়েছে৷ কিন্তু যখন জাকির নায়েক নামের কেউ পৃথিবীতে ছিল না, তখন কার কথায় সন্ত্রাসী হামলা চলত? গুজরাট দাঙ্গা, বাবরি মসজিদ ধ্বংস, শিখ নিধনে কার যোগসুত্র ছিল? গুজরাট দাঙ্গার মূলহোতা এখন প্রধানমন্ত্রী, তাকে তো ভারতে আগে নিষিদ্ধ করা উচিত ছিল, তার বদলে তাকে প্রধানমন্ত্রী করা হয়েছে৷''

‘‘স্টার প্লাস ভারতীয় চ্যানেল যে মানসিক সন্ত্রাস আর যৌন সন্ত্রাস সৃষ্টি করছে সেটার ব্যাপারে পদক্ষেপ কি?'' এই প্রশ্ন মোবাস্সর হোসেনের৷

পাঠক সাদেক হোসেন কিন্তু এত সহজেই সবকিছু মেনে নিতে রাজি নন, তাঁর চাই প্রমাণ৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘শক্তি দিয়ে সবকিছু করলেই হয়না, সরকার কেন পিস টিভি বন্ধ করেছে এবং জঙ্গি সংক্রান্ত কি তথ্য পেয়েছে তা জনগণের সামনে ব্যাখা করুক৷''

মোঃ হাসানুল হক হাসান নিশ্চিত হয়েই বলছেন যে, ‘‘ ড: জাকির নায়েকের কোনো বক্তব্যে উনি হিংসা বিদ্বেষ বা জঙ্গি উস্কানি দেননি৷ এ ব্যাপারে কোনো তথ্য প্রমাণ আজ পর্যন্ত কেউ দেখাতে পারেনি৷ যেটা দেখাচ্ছে তা হলো একটি বক্তব্যের মাঝখানের একটি অংশ , যেটি তিনি একটি লজিকের অ্যান্টি লজিক হিসেবে বলেছেন৷''

পিস টিভি বন্ধ না করে স্টার জলসা, স্টার প্লাস, জি - বাংলা টিভি চ্যানেলগুলো বন্ধ করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন মোহাম্মদ আল- আমিন৷

অন্যদিকে পাঠক তৌহিদুল ইসলাম ডয়চে ভেলেকে চ্যালেঞ্জ করে বলছেন, ‘‘পিস টিভির এমন একটা বক্তব্য, অনুষ্ঠান বা ভিডিও লিংক দেখান বা প্রকাশ করুন-যা কিনা জঙ্গি তৈরিতে সহায়তা করে৷'' এই বক্তব্যের সাথে একমত প্রকাশ করেছেন পাঠক মনিরও৷

ডয়চে ভেলের ফেসবুক বন্ধু ইসরাফিলও পিস টিভি বন্ধ না করার পক্ষেই মত দিয়েছেন৷ তিনি মনে করেন, ‘‘একমাত্র ইসলামকে সঠিকভাবে তুলে ধরতে পারলেই জঙ্গিবাদ বিলুপ্ত হবে৷'' তিনি আরো বলছেন, ইসলামকে সঠিকভাবে তুলে ধরার জন্য পিস টিভির মতো একটি চ্যানেলের প্রয়োজন আছে৷

আর বন্ধু ওমর ফারুক তো সরাসরিই বলেছেন, ‘‘ টিভি চ্যানেল বন্ধ করে কোনো সমস্যার সমাধান হতে পারে না৷ পিস টিভি বন্ধ করা মানে সাম্প্রদায়িকতার মাঝে আঘাত করা৷ ‘পিস টিভি দেখে জঙ্গি তৈরি হয়'- এই কথা বানানো ছাড়া আর কিছু না৷ এই অভিযোগের কোনো ভিত্তি নাই৷''

‘‘জাকির নায়েকের দ্বারা প্রতিদিন হাজারো মানুষ ইসলাম গ্রহণ করছেন তাই জাকির নায়েক ষড়যন্ত্রের শিকার-'' এই মন্তব্য পাঠক তানা মিয়ার৷

সাজিদ হাসান রেজার ধারণা, পিস টিভি বন্ধ করলে জঙ্গিবাদ আরো বাড়বে৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

নির্বাচিত প্রতিবেদন