‘পিপলি লাইভ’ ছবিতে মিডিয়া আর সরকারের প্রহসন | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 02.07.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

‘পিপলি লাইভ’ ছবিতে মিডিয়া আর সরকারের প্রহসন

ভারতীয় কৃষকদের আত্মহত্যা এবং তাকে ঘিরে সরকার আর মিডিয়ার প্রহসন৷ নামজাদা অভিনেতা আমির খান ক্যামেরার পিছনে গিয়ে এই বিষয় নিয়ে যে ছবি তৈরি করছেন, তাতে ভারতের গ্রাম আর নগর জীবনের পার্থক্য মূর্ত হয়ে উঠছে৷

default

‘পিপলি লাইভ’ নির্দেশনায় আমির খান

পিপলি লাইভ৷ ছবির নাম এটাই৷ ‘থ্রি ইডিয়টস'- এর দুনিয়াজোড়া সাফল্যের পর আমির আবার ছবি তৈরিতে হাত দিয়েছেন, তবে এবার আর নিজে অভিনয় করছেন না৷ এবার তিনি শুধুই নির্দেশক৷ আর নির্দেশনা দিচ্ছেন এমন একটি ছবির, সন্দেহ নেই যে সে ছবিও অচিরেই হয়ে যাবে মাইলস্টোন৷

মাইলস্টোন হওয়ার মতই তো গল্প৷ দক্ষিণ ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে শুরু হয়ে উত্তর ভারতের কয়েকটি রাজ্যে মনোবল হারানো কৃষকদের আত্মহত্যার যে ঘটনা সাম্প্রতিক অতীতে ঘটেছে, তাকে কেন্দ্র করে সরকারের প্রহসন আর মিডিয়ার লম্ফঝম্ফকেই আমির বিষয় হিসেবে বেছে নিয়েছেন৷ তিনি দেখাতে চান, এই গুরুতর মানবিক যন্ত্রণার বিষয়টা কতটা হাস্যকর হয়ে ওঠে প্রশাসন আর মিডিয়ার কারসাজিতে৷ ছবির গল্পেও তার উদাহরণ রয়েছে৷ দুই গরীব কৃষক প্রবল খরার কবলে পড়ে ঋণ নিতে বাধ্য হয়৷ তারপর সেই ঋণ শোধ করার রাস্তা না পেয়ে তারা যখন হাবুডুবু খাচ্ছে, তখন এক রাজনৈতিক নেতা তাদের বুদ্ধি দেয় আত্মহত্যা করতে৷ আত্মহত্যা করলে তাদের পরিবার যে ক্ষতিপূরণ পাবে তাতেই শোধ হয়ে যাবে ঋণ৷ এক সাংবাদিক পুরো ব্যাপারটা জানতে পেরে যায়৷ তারপর কী হয়, আর কী হতে থাকে?

এটাই গল্প৷ যে গল্পে আমীর খান এবার ভারতের শ্রেণীভিত্তিক আর জাতপাত ভিত্তিক সমাজকে বেশ গুছিয়ে তুলে ধরতে চলেছেন৷ ইকনমিক টাইমস এর চলচ্চিত্র সমালোচক মীনাক্ষী শেডের মতে, এই শ্রেণী, জাতপাত, মিডিয়া আর রাজনীতির এক বিস্ফোরক ককটেল তৈরি করছেন আমির এবারে৷ যার নাম ওই পিপলি লাইভ৷

আমির নিজে কিন্তু সে মত দিচ্ছেন না৷ কয়েকদিন আগে সাংবাদিক সম্মেলনে তাঁর দাবি, কৃষকদের আত্মহত্যা নিয়ে এই ছবি আমি তৈরি করছি না৷ এ ছবিটা হল স্রেফ একটা স্যাটায়ার বা অরন্তুদ কাব্য৷ আর একটু ভেঙে বললে বলা যায় সামাজিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিদ্রুপ৷ আমির বলেছেন, ‘আগে পেশায় সাংবাদিক ছিলেন এমনই এক চলচ্চিত্র পরিচালক আনুষা রিজভি আমার কাছে এসে কৃষকদের আত্মহত্যার পশ্চাদপট ব্যাখ্যা করার পর বিষয়টা নিয়ে আগ্রহ জাগে আমার৷ তারপরেই এই ছবির কথা ভাবি৷ আসলে শহরে বসে গ্রামের মানুষদের জীবন, তাদের সমস্যার কথা আমরা কিছুই বুঝতে পারি না৷ জানিও না৷' দাবি আমিরের৷

সেই গ্রাম শহরের বিপুল পার্থক্যের ছবিই এই পিপলি লাইভ৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়