1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

পিতা পুত্র আবারো এক ছবিতে

ইন্ডিপেন্ডেন্স ডে, মেন ইন ব্ল্যাক, হ্যাঙ্কক, আই অ্যাম লেজেণ্ড এবং ইন পারসুট অফ হ্যাপিনেস – এই ছবিগুলিতে অভিনয় করেছেন উইল স্মিথ৷ পেয়েছেন আকাশ ছোঁয়া জনপ্রিয়তা৷

default

ফাইল ছবি

উইল স্মিথের পুত্র জ্যাডেন স্মিথ৷ পিতা-পুত্র এর আগে ২০০৬ সালে একটি ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন৷ ছবির নাম ‘ইন পারসুট অফ হ্যাপিনেস'৷ ছবিতে দেখা গেছে উইল স্মিথ হন্যে হয়ে চাকরি খুঁজছেন৷ যেভাবেই হোক একটা চাকরি চাই৷ সঙ্গে রয়েছে পুত্র জ্যাডেন৷ স্ত্রী ছেড়ে চলে গেছে অনেক আগে৷ কোথাও কাজ নেই৷ এক সময় বাড়ি থেকেও বের করে দেওয়া হয় তাদের৷ পথে পথে ঘুরতে থাকে বাবা আর ছেলে৷ শেষ পর্যন্ত রাত কাটাতে হয় পাবলিক টয়লেটের ভেতরে৷

তবে এবারের ছবিটি এতোটা মর্মস্পর্শী নয়৷ এটা একটি সায়েন্স ফিকশান৷ ছবির পরিচালক নাইট শায়ামালান৷ একটি ছেলে স্পেস শিপ থেকে পৃথিবীকে খুঁজে পায়৷ পৃথিবী ততোদিনে ধ্বংস হয়ে গেছে৷ পৃথিবীর খুব কাছে এসে তাদের স্পেস শিপটিও ধ্বংস হয়ে যায়৷ ভেতর শুধু পিতা-পুত্র৷ তারা আশ্রয় নেয় এক হাজার বছর আগে ধ্বংস হয়ে যাওয়া পৃথিবীতে৷

বর্তমানে উইল স্মিথের বয়স ৪২ এবং জ্যাডেন স্মিথের বয়স ১২৷ পরিচালক শায়ামালান এর আগে আরো বেশ কিছু জনপ্রিয় ছবি পরিচালনা করেছেন৷ এর মধ্যে ‘দ্য সিক্সথ সেন্স' এবং ‘দ্য লাস্ট এয়ারবেন্ডার' উল্লেখযোগ্য৷'

জ্যাডেন স্মিথ এর আগে বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছে৷ তার মধ্যে ‘দ্য ডে দ্য আর্থ স্টুড স্টিল' এবং জ্যাকি চ্যানের সঙ্গে ‘দ্য ক্যারাটে কিড' উল্লেখযোগ্য৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ