1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

পারলেন না শচীন, আইপিএল সেরা ধোনির চেন্নাই

তিন নম্বর আইপিএল জিতে নিল চেন্নাই সুপার কিংস৷ মুম্বইয়ের মাঠে প্রবল দর্শক বিরোধিতার মধ্যেও ধোনির চেন্নাই হারিয়ে দিল শচীনের মুম্বইকে৷ তবে এবারের টুর্নামেন্ট সেরা এবং সর্বোচ্চ রানের মালিক শচীন একাই৷

default

জিতলেন ধোনি (ফাইল ফটো)

জন্মদিনের পরেই ছিল আইপিএল ফাইনাল৷ হাতে ছিল চোট৷ সেই চোট কিন্তু নয়, ক্যাপ্টেন শচীন টেন্ডুলকরের ব্যাটিং অর্ডার সাজানোয় গলদ থেকে যাওয়ায় মুম্বইয়ের আর আইপিএল সেরা হওয়াটা হল না৷ ঘরের মাঠেই তাঁর দল হেরে গেল মাত্র বাইশ রানে৷

শুরুতে ব্যাট করে ধোনির চেন্নাই তুলেছিল পাঁচ উইকেটে ১৬৮৷ তার মধ্যে সুরেশ রায়নার অপরাজিত ৫৭ রানের একটা ঝোড়ো ইনিংস ছিল৷ এরপর শচীনের দল ব্যাট করতে নেমে শুরুটাও খারাপ করে নি৷ কিন্তু শেষরক্ষা করা যায় নি মূলত ব্যাটিং অর্ডারে গড়বড় থেকে যাওয়ায়৷ দলের নামজাদা পিঞ্চ হিটার কিরন পোলার্ডকে কেন যে শচীন আট নম্বরে ঠেলে দিলেন, তা নিয়ে আফশোষ থেকেই যাবে মুম্বই সমর্থকদের৷ শচীন নিজেও এদিন খেলতে পারেন নি সেভাবে৷ শেষ পর্যন্ত বাইশ রান বাকি থাকতেই শেষ হয়ে যায় মুম্বইয়ের যাত্রা৷

এবারের আইপিএলে সর্বোচ্চ রান করেছেন শচীন৷ তাঁর সংগ্রহে মোট ৬১৮ রান৷ ৩৭ বছর বয়সে বিশ্বের এক নম্বর ব্যাটসম্যানের এখনও এই দক্ষতা চমকের থেকেও বহুগুণ বেশি৷ টুর্নামেন্ট সেরাও হয়েছেন শচীন টেন্ডুলকর৷ ফাইনালের সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন সুরেশ রায়না৷ অনুর্দ্ধ তেইশ সেরা হয়েছেন সৌরভ তিওয়ারি৷ সবথেকে বেশি, ২১টি উইকেট তুলেছেন প্রজ্ঞান ওঝা৷ আর ফেয়ার প্লে পুরস্কারটিও চ্যাম্পিয়নের তকমার সঙ্গেই ঘরে তুলেছে চেন্নাই সুপার কিংস৷

২০০৮ সালের আইপিএলে ফাইনালে উঠেছিল চেন্নাই৷ সেবার রাজস্থান রয়্যালসের কাছে তারা হেরে যায়৷ এবার চেন্নাইয়ের দল তেমন ফেভারিট ছিল না টুর্নামেন্টের শুরুর দিকে৷ কিন্তু, শেষ হাসিটা তারাই হাসছে, তাও আবার শচীনের ঘরের মাঠে৷ যেখানে প্রবল দর্শক বিরোধিতার মধ্যেও নিজেদের স্নায়ু ঠিক রেখে লড়াইটা চালাতে পেরেছে ধোনির দল৷

চেন্নাই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অবশ্যি এবারের আইপিএলের আসরে যবনিকা পড়ে গেল, একথা বলা যাবে না৷ কারণ, আইপিএলে ম্যাচ পাতানো নিয়ে নতুন খেলা শুরু হয়েছে ফাইনালের আগে থেকেই৷ রোববার রাতেই বরখাস্ত হয়েছেন আইপিএল প্রধান ললিত মোদি৷ ফলে এখন চলতেই থাকবে জাবর কাটার কাজ৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়