1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পারমাণবিক অস্ত্রে সক্ষমতা বাড়িয়ে চলেছে ন’টি দেশ

পারমাণবিক অস্ত্রের বিস্তার রোধে অঙ্গীকারাবদ্ধ হলেও আধুনিকায়ন এবং সক্ষমতা বৃদ্ধির প্রচেষ্টা চালেই যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়াসহ ৯টি দেশ৷ বিষয়টি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে স্টকহোম আন্তর্জাতিক শান্তি গবেষণা ইন্সটিটিউট৷

পারমাণবিক অস্ত্র বিষয়ক বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে স্টকহোম আন্তর্জাতিক শান্তি গবেষণা ইন্সটিটিউট (এসআইপিআরআই) বা সিপ্রি৷ প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ – এই পাঁচ বছরে সারা বিশ্বে পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা ২২ হাজার ৬০০ থেকে কমে ১৫ হাজার ৮৫০ হয়েছে৷ পাঁচ বছরে মোট ৬ হাজার ৭৫০টি অস্ত্র কমে যাওয়ার পরেও সিপ্রি বিষয়টি নিয়ে সন্তোষ বা স্বস্তি প্রকাশ করতে পারেনি৷ বরং শঙ্কাই প্রকাশ করেছে তারা৷

শান্তি বিষয়ক গবেষণা সংস্থাটি পর্যালোচনা করে দেখেছে, পারমাণবিক অস্ত্রে সক্ষম ৯টি দেশ, অর্থাৎ যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ব্রিটেন, ফ্রান্স, চীন, ভারত, পাকিস্তান, ইসরায়েল ও উত্তর কোরিয়া আসলে ভেতরে ভেতরে তাদের পারমাণবিক অস্ত্র বিস্তার কর্মসূচিকে সমৃদ্ধই করছে৷

Infografik Stand der Atomwaffenarsenale weltweit 2015 Englisch

মানচিত্রে পারমাণবিক অস্ত্রধারী ৯ দেশ

স্টকহোমে সিপ্রি-র গবেষক শ্যানন কাইল বলেছেন, ‘‘পরমাণুঅস্ত্রধারী দেশগুলো আধুনিকায়ন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে৷ এর অর্থ, অদূর ভবিষ্যতে দেশগুলো পারমাণবিক অস্ত্র পরিহার করবে বলে মনে হয় না৷''

প্রতিবেদনে বলা হয়, পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা হ্রাসে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়া৷ মোট হ্রাসের শতকরা ৯০ ভাগই এই দুটি দেশের অবদান৷ তবে সংখ্যা হ্রাসের মাধ্যমে দেশগুলো পারমাণবিক অস্ত্র পর্যায়ক্রমে পরিহার করার সদিচ্ছা প্রকাশ করেনি, কেননা, যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স এবং ব্রিটেন মূলত মেয়াদ উত্তীর্ণ অস্ত্র কমাচ্ছে আর পাশাপাশি অস্ত্রের মওজুদকে আরো আধুনিক করছে৷

ভারত এবং পাকিস্তানও পারমাণবিক অস্ত্রে সক্ষমতা বাড়িয়ে চলেছে৷ ভারতের অস্ত্র সংখ্যা ৯০ থেকে বেড়ে ১০০ এবং পাকিস্তানের ১০০ থেকে বেড়ে ১২০ হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন