1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানে মুক্তি পেলেন ব্রিটিশ সাংবাদিক

পাকিস্তানের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে জঙ্গিরা যে ব্রিটিশ সাংবাদিককে জিম্মি করেছিল, তাকে মুক্তি দেয়া হয়েছে৷ বৃহস্পতিবার লন্ডনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা এই খবর দিয়েছেন৷ কয়েক মাস ধরে তাকে জিম্মি করে রাখা হয়েছিল৷

default

পাকিস্তানের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে জঙ্গি তৎপরতা কমার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক আসাদ কুরেশি, ব্রিটেনের ‘চ্যানেল ফোর' টেলিভিশন স্টেশনের জন্যে পাকিস্তানের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের জঙ্গিবাদ নিয়ে একটি ছবি তৈরির সঙ্গে জড়িত ছিলেন৷ লন্ডনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, ‘‘আমরা নিশ্চিতভাবে বলতে পারি যে, আসাদ কুরেশি মুক্তি পেয়েছেন এবং পাকিস্তানে ব্রিটিশ দূতাবাসের কনসুলার স্টাফরা তাঁকে সহায়তা দিচ্ছেন৷''

একদিকে পাকিস্তানের বন্যা দুর্গত মানুষ যখন জীবন বাঁচাতে লড়াই করছে, তখন প্রায় প্রতিদিনই দেশটিতে বোমা হামলার ঘটনা ঘটছে৷ বৃহস্পতিবারও পাকিস্তানের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর কোয়েটার প্রাদেশিক মন্ত্রীর বাড়ির কাছে এক বোমা হামলায় ৪ জন নিহত হয়েছেন৷ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হামিদ শাকিল বলেছেন, ‘‘মন্ত্রীর বাড়ির কাছে একটি বাহনের নিচে বোমাটি লাগিয়ে রাখা হয়েছিল৷'' কোয়েটার পুলিশ প্রধান আবিদ হুসেন নাউটকানি বালুচিস্তানের প্রাদেশিক মন্ত্রী আসিম কূর্দ ঘিলোর বাড়ির কাছে বোমা হামলার কথা নিশ্চিত করেছেন৷

ওদিকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কোয়ারে ব্যর্থ গাড়ি বোমা হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পাকিস্তান পুলিশ ইসলামাবাদ থেকে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে দুই সপ্তাহ আগে৷ তাদেরকে এরই মধ্যে কয়েকদিন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে৷ ইসলামাবাদের অপারেশন পুলিশ প্রধান বানি আমিন বলেছেন, ঐ ব্যর্থ বোমা হামলার অভিযোগে নিউ ইয়র্কে গ্রেপ্তারকৃত ফয়সাল শাহজাদের সঙ্গে গ্রেপ্তারকৃত এই ৩ জনের যোগাযোগ ছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে৷ এবং তারা পাকিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে টাকাও পাঠিয়েছিল৷

বানি আমিন এএফপিকে বলেন, ‘‘আজ আমরা তাদের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক মামলা দায়ের করেছি৷ ঐ তিন সন্দেহভাজনের নাম শোয়েব মুঘল, মোহাম্মদ শহিদ, এবং হানবার আক্তার৷ যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, তাদেরকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র ‘সন্তুষ্ট'৷ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফিলিপ ক্রাউলি বলেছেন, আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, পাকিস্তান থেকে ফয়সাল শাহজাদ সাহায্য পেয়েছে এবং আমরা খুব ঘনিষ্ঠভাবে পাকিস্তান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এই ব্যাপারে কাজ করেছি৷

বানি আমিন বলেন, গ্রেপ্তারকৃত তিনজনের সঙ্গে তারিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) নেতা হাকিমুল্লাহ মেহসুদ এবং ক্বারি হুসেনের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল৷ এই সংগঠনটিই ১-লা মে টাইম স্কোয়ারে বোমা হামলার পরিকল্পনার দায়িত্ব স্বীকার করেছে৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা
সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়