1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানে বন্যায় এখন দক্ষিণাঞ্চল প্লাবিত

পাকিস্তানের স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যা এখন আঘাত হেনেছে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে৷ সিন্ধু নদের পানি এখন বইছে বিপজ্জনক সীমার ওপর দিয়ে৷ এদিকে ত্রাণ নিয়ে বেশ আশার কথা শুনিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ৷

Muzaffargarh near Multan, Pakistan

বন্যার পানিতে ডুবে গেছে মূল সড়ক

সিন্ধু নদের আশেপাশে বন্যা

পাকিস্তানের বন্যার পানি এখন ক্রমশই উত্তর থেকে দক্ষিণ দিকে এগিয়ে যাচ্ছে৷ বন্যার তোড় দেখলে পাহাড়ি নদীর স্রোতের কথাই মনে পড়ে যায়৷ এতদিন ধরে দেশটির উত্তর পশ্চিমাঞ্চল ছিল পানির তলায়৷ এখন সেই পানি ধেয়ে যাচ্ছে দক্ষিণের সিন্ধুপ্রদেশের দিকে৷ ইতিমধ্যে সিন্ধু নদের আশপাশের অনেক এলাকা থেকে মানুষ পালিয়েছে বন্যা থেকে বাঁচার জন্য৷ জানা গেছে, কয়েক লাখ মানুষকে ইতিমধ্যে সিন্ধু নদের আশপাশের এলাকাগুলো থেকে সরিয়ে নিয়েছে সরকার৷ সিন্ধু প্রদেশের অন্যতম শহর শাদাদকোট প্রায় জনশূণ্য৷

সিন্ধু প্রদেশের সেচমন্ত্রী জাম সাইফুল্লাহ ধারেজো বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, আমরা এই মুহুর্তে শাদাদকোট শহরটিকে রক্ষা করার চেষ্টা করছি৷ শহরকে রক্ষার জন্য যে বাঁধ তৈরি করা হয়েছিলো বন্যার পানির কারণে সেটির এখন প্রায় ভেঙ্গে পড়ে পড়ে অবস্থা৷ তিনি আরও জানিয়েছেন, শহর থেকে প্রায় এক লাখ মানুষকে সরিয়ে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷

flooded in Pakistan

বন্যায় দুর্গতদের দুর্গতি

তবে এখনও অনেকে বাকি রয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন সিন্ধুপ্রদেশের সেচ মন্ত্রী৷ অন্যদিকে সিন্ধুপ্রদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের পরিচালক খায়র মোহাম্মদ কালোর জানিয়েছেন, সিন্ধু নদের পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় অন্তত দুটি জেলা এখন বন্যার ঝুঁকিতে রয়েছে৷ এদিকে বন্যা কবলিত উত্তরাঞ্চলে এখনও অনেক এলাকা পানির নীচে৷ লাখ লাখ মানুষ ত্রাণের আশায় দিন কাটাচ্ছে৷

বিপুল ত্রাণের প্রতিশ্রুতি

বন্যা পরিস্থিতির দুঃসংবাদের বিপরীতে অবশ্য ত্রাণ নিয়ে সুখবর রয়েছে৷ পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি রোববার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন যে এখন পর্যন্ত প্রায় ৮১৬ মিলিয়ন ডলারের সহায়তার প্রতিশ্রুতি তাঁরা পেয়ে গেছেন৷ জাতিসংঘ জানিয়েছিল যে বন্যার প্রাথমিক ধাক্কা সামলে উঠতে পাকিস্তানের প্রয়োজন ৪৬০ মিলিয়ন ডলার৷ তাই আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি ত্রাণের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সেটিকে সুখবরই বলা যায়৷ তবে এই ত্রাণের কতটুকু দ্রুত দুর্গত মানুষদের কাছে পৌঁছায় সেটিই এখন দেখার বিষয়৷ অন্যদিকে আজ পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী আবদুল হাফিজ শেখ ওয়াশিংটনে আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানা গেছে৷ সেখানেও পাকিস্তানে দ্রুত ত্রাণ পৌঁছানোর বিষয়টি গুরুত্ব পাবে বলে মনে করা হচ্ছে৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়