1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানে দেহরক্ষীর গুলিতে গভর্নর খুন

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নর সালমান তাসির নিজ দেহরক্ষীর গুলিতে নিহত হয়েছেন৷ মঙ্গলবার ইসলামাবাদে দিনেদুপুরে সবার সামনে তাঁকে গুলি করে হত্যা করা হয়৷ এদিকে এই ঘটনার পর সারা দেশে তিনদিনের শোক পালন করা হবে৷

Governor, Pakistan, Punjab, Province, Salman, Taseer, wife, Parliament, building, President, Asif, Zardari, Islamabad, পাকিস্তান, দেহরক্ষী, গুলি, গভর্নর, খুন, সালমান, তাসির

সস্ত্রীক সালমান তাসির (ফাইল ছবি)

প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা

ঘটনাটি ঘটেছে প্রকাশ্যে দিনেদুপুরে৷ ইসলামাবাদের এফ সিক্স সেক্টর এলাকায় অবস্থিত কোসার মার্কেট এলাকায় এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে৷ প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থাগুলো জানিয়েছে, গভর্নর সালমান তাসির নিজ গাড়ি থেকে বের হওয়া মাত্রই তার দেহরক্ষী একেবারে কাছ থেকে তাঁকে গুলি করে৷ মুহূর্তেই লুটিয়ে পড়েন পাঞ্জাবের গভর্নর৷ তবে গুলি করেও ঘাতক পালিয়ে যায়নি৷ বরং পিস্তল ফেলে দিয়ে সে দুই হাত তুলে আত্মসমর্পণ করে৷ অর্থাৎ সালমান তাসিরকে হত্যা করাই ছিল তার একমাত্র লক্ষ্য৷ গুরুতর আহতাবস্থায় তাসিরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক৷

হত্যাকাণ্ডের কারণ

দেহরক্ষীর পরিচয় এখনও জানা যায়নি৷ তবে হত্যাকাণ্ডের কারণ নিয়ে সে মুখ খুলেছে, এমনটাই দাবি করেছেন পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রেহমান মালিক৷ তিনি বলেছেন, ব্লাসফেমি আইনের বিরোধিতা করার জন্যই গভর্নরকে হত্যা করেছে দেহরক্ষী৷ কারণ অনেক আগে থেকেই সালমান তাসির এই আইনকে কালো আইন বলে অভিহিত করে আসছিলেন৷ উল্লেখ্য, ব্লাসফেমি আইনের পরিবর্তন না করার জন্য উগ্রবাদী গোষ্ঠীগুলো পাকিস্তান সরকারের ওপর চাপ দিয়ে আসছিলো৷ অন্যদিকে মানবাধিকার সংগঠনগুলোর অভিযোগ, এই আইনের অপব্যবহার হচ্ছে বেশি৷ আর পাকিস্তানের ক্ষমতাসীন দলের অত্যন্ত প্রভাবশালী নেতা সালমান তাসিরও মানবাধিকার সংগঠনগুলোর পক্ষে দাঁড়িয়েছিলেন৷ উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে গভর্নর হিসেবে নিযুক্ত হন তাসির৷

তিনদিনের শোক

মাত্র দুইদিন আগেই ক্ষমতাসীন জোট ভেঙে যাওয়ার কারণে পাকিস্তানে নতুন করে রাজনৈতিক সংকট দেখা গেছে৷ এই অবস্থায় এই হত্যাকাণ্ডের পর স্বাভাবিকভাবেই শাসক দল পাকিস্তান পিপলস পার্টি পিপিপি ক্ষুব্ধ ও ব্যথিত৷ তারা দুই সপ্তাহের শোক কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে৷ তবে প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি সকলকে শান্ত থাকতে বলেছেন৷ তাঁর দপ্তর থেকে এক বিবৃতিতে ঘটনার তদন্ত যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা যায় সেজন্য সকলের সহযোগিতার আহ্বান জানানো হয়েছে৷ অন্যদিকে সরকারিভাবে তিনদিনের জাতীয় শোকও ঘোষণা করা হয়েছে৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক