পাকিস্তানে জোড়া আত্মঘাতী হামলা | বিশ্ব | DW | 06.12.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানে জোড়া আত্মঘাতী হামলা

এই হামলায় নিহত হয়েছে ৪০ জন আহত প্রায় ৬০ জন৷ পুলিশের পোশাক পরে দু’জন হামলাকারী সরকার সমর্থক উপজাতীয় নেতাদের এক বৈঠকে হামলা চালায়৷

default

বোমা হামলায় প্রাণ হারিয়েছে ৪০ জন

জোড়া বোমা হামলার ঘটনা ঘটে মোহমান্দ উপজাতীয় এলাকার ঘালালনাই-এ ৷ রাজধানী ইসলামাবাদ থেকে প্রায় ১৭৫ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত মোহমান্দ৷ একটি বৈঠকে হামলা চালানো হয়৷ তালেবান বিরোধী উপজাতীয় নেতাদের বৈঠকটি চলছিল ঘালালনাই-এ শীর্ষ জেলা প্রশাসকের দপ্তরে৷ পুলিশের পোশাক পরে হামলা চালানো হয়৷

তালেবানের হুমকি

পাকিস্তানি তালেবান এর একজন মুখপাত্র হামলার দায় স্বীকার করেছে৷ এছাড়া হুমকি দিয়েছে তালেবান বিরোধী কোন বৈঠকে যেই অংশগ্রহণ করবে তাকেই হত্যা করা হবে৷

Hakimullah Mehsud Taliban Tehrik e Taliban

হামলার দায় স্বীকার করেছে তালেবান

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন এই হামলার ঘটনা সম্পর্কে৷ হামলায় মোহমান্দ এলাকার সর্বোচ্চ রাজনৈতিক কর্মকর্তা আমজাদ আলী বেঁচে যান৷ রক্ষা পান ৫০ বছর বয়স্ক সাকী জান৷ তিনি শান্তি কমিটির পক্ষ থেকে বৈঠকে যোগ দেন৷ হাতে সামান্য জখম হয়েছে তাঁর ৷ কমিটির আরেক সদস্য সুজা আহমেদ জানান,‘‘ ছোট ছোট গ্রুপ হয়ে বসে সবাই আলোচনা করছিল বাইরের লনে বসে৷'' আমজাদ আলী বলেন,‘‘স্থানীয় পুলিশের পোশাক পড়ে হামলাকারীরা এসেছিল৷ মেইন গেইটের কাছে একজন নিজেকে বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়৷ আরেকজন বিস্ফোরণ ঘটায় অফিসে৷''

নিহতদের মধ্যে রয়েছেন অন্তত দশজন সরকারি কর্মকর্তা এবং দু' জন সাংবাদিক৷ শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪০, আহত হয়েছে ৬০ জনেরও বেশি৷ এর মধ্যে ২৫ জনের অবস্থা অত্যন্ত গুরুতর৷ দপ্তর ভবনের চত্বরে উপস্থিত ছিল প্রায় একশ জন মানুষ৷ বিল্ডিংটি বেশ ভালভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে৷ ঘালালনাই-এর স্থানীয় হাসপাতালের চিকিৎসক জাহাঙ্গীর খান জানান, ৩১টি মৃতদেহ আনা হয়েছে বিস্ফোরণের কিছুক্ষণ পরেই৷ গুরুতর জখমের অনেকেই হাসপাতালে আনার পর মারা গেছে৷ ৬০ জনকে ভর্তি করা হয়েছে৷

বেশ কিছুদিন ধরেই পাকিস্তানে চলছে একের পর এক বোমা হামলা৷ তালেবান জঙ্গিরা এখনও সক্রিয়, তারই প্রমাণ মেলে তা থেকে৷ জুলাই মাসের ৯ তারিখে ইয়াকাঘুন্দ শহরে একটি গাড়ি বোমা হামলায় মারা যায় একশ পাঁচ জন মানুষ৷ ২০০৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত প্রায় চার হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বিভিন্ন বোমা হামলায়৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়