1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানে আবার ন্যাটোর ট্রাকের উপর হামলা

মার্কিন ড্রোন হামলার ফলে গত কয়েক দিন ধরেই পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তে উত্তেজনা বেড়ে চলছিল, যার জের ধরে আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক বাহিনীর জন্য রসদের যোগান স্তব্ধ হয়ে যায়৷ বুধবারে ন্যাটোর ট্রাক বহরের উপর বড় হামলা হয়েছে

default

ন্যাটোর ট্রাক বহরের উপর বড় হামলা চালানো হয়েছে

প্রথমে উত্তর পশ্চিম সীমান্ত, এবার দক্ষিণের বালুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটায় হামলার লক্ষ্যবস্তু হলো ন্যাটোর ট্রাক বহর৷ তালেবান এই ঘটনারও দায় স্বীকার করেছে৷ আজম তারিক নামের এক তালেবান মুখপাত্র জানিয়েছেন, মার্কিন ড্রোন হামলায় নিরীহ মানুষের মৃত্যুর জবাব দিতেই এই হামলা চালানো হল৷ পুলিশের কর্মকর্তা শাহ নওয়াজ খান জার্মান বার্তা সংস্থা ডিপিএ'কে বলেছেন, আখতার আবাদ এলাকায় টার্মিনালে প্রায় ৪০টি ট্রাক দাঁড়িয়ে ছিল৷ বন্দুকধারী একটি দল দু-তিনটি গাড়ি করে এসে গুলি চালাতে শুরু করে৷ তারপর প্রায় ১০টি ট্রাকে তারা আগুন লাগিয়ে দেয়৷ তারপর তারা বিনা বাধায় পালিয়ে যায়৷ স্থানীয় একটি হাসপাতালে গুলিবিদ্ধ একটি মৃতদেহ ও এক ব্যক্তিকে আহত অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয় বলে জানা গেছে৷

US Drone Predator Flash-Galerie

এই ড্রোনের হামলাতেই প্রাণ হারিয়েছে তিন পাকিস্তানি

আফগানিস্তানে ন্যাটো বাহিনীর জন্য স্থলপথে রসদ ও সাজসরঞ্জাম পৌঁছানোর বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ অনেক প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ন্যাটোর ট্রাক বহর এতকাল পাকিস্তানের বন্দর থেকে স্থলপথে আফগানিস্তানে যাচ্ছিল৷ কিন্তু সীমান্ত এলাকায় পাকিস্তানের সেনা সদস্য ও নিরীহ মানুষও বার বার মার্কিন ড্রোন ও অন্যান্য হামলার শিকার হচ্ছে৷ যেমন গত সপ্তাহে সীমান্তে হেলিকপ্টার থেকে চালানো হামলায় পাকিস্তানের আধা সামরিক বাহিনীর ৩ সৈন্য নিহত ও ৩ জন আহত হয়েছিল৷ এই সব ঘটনার ফলে ছড়িয়ে পড়ছে জনরোষ৷ পাকিস্তানের সরকারও অত্যন্ত ক্ষুব্ধ৷ তারা বৃহস্পতিবার থেকে ন্যাটোর জন্য সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে৷ ফলে সরকার, তালেবান ও স্থানীয় মানুষ – সব পক্ষই ন্যাটোর বিরুদ্ধে বেঁকে বসেছে৷ তবে এই অচলাবস্থা কাটাতে ওয়াশিংটন ও ইসলামাবাদের মধ্যে আলোচনা চলছে৷ হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র রবার্ট গিবস দ্রুত এক সমাধানসূত্রের আশা প্রকাশ করেছেন৷ পাকিস্তানে তাদের এই সংকট সত্ত্বেও আফগানিস্তানে ন্যাটোর কাজকর্মের উপর আপাতত কোনো প্রভাব পড়বে না বলে দাবি করছে ওয়াশিংটন৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়