1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পাকিস্তানের বিপর্যয় ও জার্মান সংবাদ মাধ্যম

পাকিস্তানের ভয়াবহ বন্যার প্রভাব যে দীর্ঘস্থায়ী হবে, এবিষয়ে আর কোনো সন্দেহ নেই৷ জার্মান সংবাদ মাধ্যমেও এই বিপর্যয়ের নানা দিক তুলে ধরা হচ্ছে৷

default

চাই মাথা গোঁজার স্থান

পবিত্র মাহে রমজান মাসে এমন এক মারাত্মক অভিজ্ঞতার মাধ্যমে কি পাকিস্তানের মানুষের ধর্মবিশ্বাসের পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে? অনেকেই এই প্রশ্ন তুলছে বলে মন্তব্য করেছে ‘নয়ে স্যুরশার সাইটুং'৷ টেলিভিশনে ধর্মীয় প্রচারকরা এই সুযোগে নিজস্ব ধ্যান-ধারণা তুলে ধরছেন বটে, কিন্তু সাধারণ মানুষের একটা বড় অংশের মতো পাঞ্জাবি কবি আশু লাল মনে করেন, এই বিপর্যয়ের মূল কারণ মাত্রাহীন লোভ ও দেশকে কার্যত ধর্ষণ করার সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টা৷ নদীর অববাহিকায় যেভাবে নির্মাণের কাজ চালানো হয়েছে, তার ফলে নদীর গতিপথে পদে পদে বাধার সৃষ্টি হয়েছে৷ সিন্ধু আবার যখন পূর্ণ শক্তি নিয়ে ফিরে এসেছে, তখন সেই পথ আর খুঁজে পায় নি৷

সাপ্তাহিক ‘ডি সাইট' পত্রিকায় মহসীন হামিদ নিজের প্রিয় দেশের বিপর্যয়ের খতিয়ান তুলে ধরেছেন৷ প্রাথমিকভাবে বর্ষার ছন্দ দেখে অশনী সঙ্কেত না পাওয়া গেলেও পরে তার তেজ টের পাওয়া গেছে৷ লেখকের মতে, পাকিস্তানে বসবাস করার অর্থই হল আশা ও বিহ্বলতার দুই মেরুর মধ্যে বিচরণ করা৷ রাষ্ট্র হিসেবে পাকিস্তানের দুর্বলতা এই সমস্যাগুলিকে আরও কঠিন করে তুলেছে৷ কর বাবদ আয়ের মাত্রা নামমাত্র৷ দেশের এলিট শ্রেণী মানুষের কল্যাণে অবদান রাখতে নারাজ৷ অথচ রাষ্ট্রের আয় বাড়িয়ে সমৃদ্ধির সুষম বণ্টন নিশ্চিত করতে পারলে অর্থনৈতিক সমস্যার সমাধান করা সম্ভব৷ এই সাফল্য অর্জন করা সম্ভব হলে উগ্রবাদী শক্তির দৌরাত্ম্যেরও মোকাবিলা করা সম্ভব হবে৷ পাকিস্তানের সেনাবাহিনী মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে যথেষ্ট আন্তরিকতা দেখাচ্ছে না, কারণ তাদের কাছে মূল শত্রু ভারত৷ দুই দেশের ক্ষমতাকেন্দ্রেই এমন কিছু কট্টরপন্থী প্রতিনিধি রয়েছেন, যাঁরা শান্তি চান না৷

Flash-Galerie Pakistan Überschwemmung

চাই অন্ন

পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর গুরুত্ব তুলে ধরেছে ‘নয়েস ডয়েচলান্ড' সংবাদপত্র৷ সরকার পরিস্থিতি সামাল দিতে না পারায় আবার সেই জেনারেলদের ডাক পড়েছে৷ লন্ডনে নির্বাসিত এমকিউএম নেতা আলতাফ হুসেন এমনকি সরাসরি পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর উদ্দেশ্যে অভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছেন৷ তাঁর মতে, যে সব রাজনৈতিক নেতা নিজেদের জমির ফসল বাঁচাতে বন্যার জলের ধারা গরিবদের গ্রামের দিকে চালিত করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা উচিত৷ এই প্রসঙ্গে গণতান্ত্রিক সরকারের একাধিক দুর্বলতার দৃষ্টান্ত তুলে ধরেছে ‘নয়েস ডয়েচলান্ড'৷

সংকলন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়