1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পল্লির নারীরা যেভাবে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা করছেন

বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছেন অনেকে৷ বিশেষ করে নারীরা বের করেছেন বিকল্প পন্থা, যাতে তাদের পরিবারের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের কুফল আঘাত হানতে না পারে৷

সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে লবণাক্ত পানি ক্রমশ বাংলাদেশের ভেতরের দিকে ঢুকে পড়ছে৷ দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের অনেক ফসলি জমিতে তাই লবণের মাত্রা বেড়ে যাচ্ছে৷ ফলে আগে যেসব ধান, শাকসবজি ফলানো যেত তা এখন আর সম্ভব হচ্ছে না৷

তাই বলে সেসব অঞ্চলের নারীরা হাল ছাড়তে রাজি নন৷ তাঁরা বেছে নিচ্ছেন বিকল্প পথ, এমন সব শাকসবজি তারা ফলাতে চাচ্ছেন, যা লবণাক্ততার শিকার জমিতেও ফলানো সম্ভব৷ জমিতে এমন ধান চাষের চেষ্টা হচ্ছে, যা লবণাক্ত পানিতেও টিকে থাকতে পারে৷

ডয়চে ভেলের ভিডিওতে সেরকম কয়েক নারীর জীবনসংগ্রাম দেখানো হয়েছে৷ এদের একজন সুচিত্রা মিস্ত্রি৷ তিনি কাঁকড়া চাষ করে তার পরিবারের উপার্জনে সহায়তা করছেন৷ এখানে বলা প্রয়োজন, বাংলাদেশের পল্লী অঞ্চলে সচরাচর নারীদের পরিবারের হাল ধরতে দেখা যায় না৷ তবে এখন পরিস্থিতি ক্রমশ বদলে যাচ্ছে বলেই মনে হচ্ছে৷

নারীদের জলবায়ু পরিবর্তনের মোকাবিলায় সহায়তা করতে এগিয়ে এসেছে উন্নয়নসংস্থা ‘সেন্টার ফর গ্লোবাল চেঞ্জ৷' তারা বিভিন্ন শস্য সম্পর্কে নারীদের ধারণা দিচ্ছে, যা বিরূপ পরিবেশে টিকে থাকতে পারে৷ পাশাপাশি দেয়া হচ্ছে প্রশিক্ষণ৷ আর একজন নারী নতুন কিছু শিখলে সেটা তিনি অন্যদের জানাচ্ছেন৷ এভাবে তৈরি হচ্ছে একটি দল যারা জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি থেকে তাদের পরিবার রক্ষায় বদ্ধ পরিকর৷

উল্লেখ্য, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে অন্যতম ক্ষতির শিকার একটি দেশ বাংলাদেশ৷ সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে দেশটির উপকূলবর্তী বিস্তীর্ণ এলাকা পানির নীচে তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে৷

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় করণীয় কী? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়