1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পরোক্ষ মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনা শুরু

দীর্ঘ ১৭ মাস বন্ধ থাকার পর রবিবার আবারো শুরু হয়েছে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনা৷ তবে দুই পক্ষের মধ্যে সরাসরি আলোচনা হচ্ছে না, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় পরোক্ষ শান্তি আলোচনায় অংশ নেবে প্যালেস্টাইন এবং ইসরায়েল৷

default

মার্কিন দূত জর্জ মিচেল এবং প্যালেস্টাইনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের মধ্যে বৈঠক

মার্কিন মধ্যস্থতায় আবারো শুরু হয়েছে পরোক্ষ মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনা৷ রবিবার, প্যালেস্টাইনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে মার্কিন বিশেষ দূত জর্জ মিচেল বৈঠক করেন৷ এরপরই প্যালেস্টাইনের প্রধান আলোচক সায়েব এরেকাত শান্তি আলোচনার ঘোষণা দেন৷ তিনি বলেন, আমি আনুষ্ঠানিকভাবে জানাচ্ছি যে, পরোক্ষ আলোচনা শুরু হয়েছে৷ আমরা আশা করছি, মানে যেমনটা আমাদের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, যে শান্তি প্রক্রিয়ার মার্কিন উদ্যোগ যাতে সফলতার সঙ্গে শেষ হয় সেজন্য প্রেসিডেন্ট ওবামা এবং সিনেটর মিচেলকে আমরা সকল প্রকার সহায়তা করবো৷

সায়েব বলেন, এই আলোচনা প্যালেস্টাইনের প্রেসিডেন্ট এবং ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে৷ তবে ইসরায়েল সরকারের সঙ্গে আমাদের সরাসরি কোন সমঝোতা হচ্ছে না৷ তিনি বলেন, আমরা আলোচনা করবো জর্জ মিচেল এবং অ্যামেরিকার সঙ্গে এবং তারা দুই পক্ষের মধ্যে মধ্যস্থতা করবে৷

এদিকে, ইসরায়েলের সঙ্গে পরোক্ষ শান্তি আলোচনায় সম্মত হবার কারণ ব্যাখ্যা করেছে প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশন বা পি.এল.ও৷ সংগঠনের নির্বাহী সদস্য ইয়াসির আবেদ রাব্বো জানিয়েছেন, কয়েকটি নির্দিষ্ট বিষয়ে প্রতিশ্রুতি পাবার পর আমরা আলোচনায় রাজি হয়েছি৷ শান্তি আলোচনায় বাধা সৃষ্টি করতে পারে, এমন কোনো হুমকি মোকাবিলায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাজনৈতিক অবস্থান নেয়ার বিষয়ে সম্মত হয়েছে এবং এই সমঝোতায় দুই পক্ষে মধ্যে পরোক্ষ আলোচনাও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে৷

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু এই আলোচনাকে স্বাগত জানিয়েছেন বটে, তবে তিনি সরাসরি উন্মুক্ত আলোচনার পক্ষে৷ নেতানিয়াহু বলেন, পরোক্ষ আলোচনা দ্রুত সরাসরি আলোচনায় রূপ নেয়া উচিত৷ একই টেবিলে না বসলে আমরা আমাদের মধ্যকার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর সমাধান করতে পারবো না৷

অবশ্য দুই পক্ষই আশা করছে, পরোক্ষ শান্তি আলোচনায় ইসরায়েল এবং প্যালেস্টাইনের সব ইস্যুই প্রাধান্য পাবে৷ বিশেষ করে সীমান্ত নির্ধারণ, নিরাপত্তা এবং জেরুসালেম সংকটের মতো বিষয়গুলো নিয়েই চলবে আলোচনা৷

উল্লেখ্য মার্কিন মধ্যস্থতায় দুই পক্ষের পরোক্ষ আলোচনা শুরুর কথা ছিল গত মার্চেই৷ কিন্তু সেসময় ইসরায়েল পূর্ব জেরুসালেমে ১৬০০ নতুন বসতি নির্মাণের ঘোষণা দিলে আলোচনা ভেস্তে যায়৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়