1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পরিবহণ চুক্তিতে খুশি অনেকেই, আছে সতর্ক প্রতিক্রিয়াও

আর কয়েকমাস পর ব্যক্তিগত গাড়ি কিংবা যাত্রীবাহী বাসে চড়ে ভারত, নেপাল আর ভুটান যাওয়ার সুযোগ তৈরি হচ্ছে৷ এই খবরে বেশ খুশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকারীরা৷ তবে কেউ কেউ সতর্ক প্রতিক্রিয়াও ব্যক্ত করেছেন৷

ফেসবুকে শেয়ার হওয়া এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদনের নীচে টুটুল মণ্ডল লিখেছেন, ‘‘এটি একটি সঠিক সিদ্ধান্ত৷'' রাইয়ান একে ‘যোগাযোগের নতুন দিগন্ত' বলে আখ্যায়িত করেছেন৷ সাইফ উদ্দিন ইউরোপের উদাহরণ টেনে এনে বলেছেন, ‘‘খুব ভাল ও আধুনিক সিদ্ধান্ত৷'' মো. আয়নাল অবশ্য তাঁর ব্যক্তিগত আনন্দের প্রকাশ ঘটিয়েছেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘চারটি দেশ ঘুরবো আমি বাইকে চড়ে৷ সেজন্য আমি খুব খুশি৷''

তবে কেউ কেউ সতর্ক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন৷ যেমন অ্যাঞ্জেল ইসলাম লিখেছেন, ভাই দেশের স্বার্থ ঠিক আছে কিনা তা দেখেন৷'' মোহাম্মদ নুরুল আমিন লিখেছেন, ‘‘চুক্তি হয়েছে ভালো, তবে এতে দেশের অর্থনীতি নামক গাছটিতে যেন কিছু মিঠা ফল আসে, না হয় যান চলবে ঠিকই কিন্তু দেশের যান (জান) থাকবেনা৷'' আমিন আল আতিক বলছেন, ‘‘দেশটা যেন অন্যদের বিচরণ ভূমি না হয়৷ এটাই আমাদের চাওয়া!!'' ফাহাদ আহমেদের মন্তব্য, ‘‘শুনতে তো ভালোই লাগলো, দেখা যাক কী হয়৷''

এদিকে, সাইফুল ইসলাম ইয়ামিন মনে করছেন এই চুক্তির ফলে চোরাচালানকারীদের সুবিধা হবে৷

চুক্তি নিয়ে কিছু পরামর্শও দিয়েছেন কেউ কেউ৷ মামুনুর রশিদ সনেট লিখেছেন, ‘‘ইউরোপীয় ইউনিয়নের আদলে সার্কভুক্ত দেশগুলিকে কানেক্ট করুন, যেখানে চলাচলের জন্য কোনো ভিসার প্রয়োজন হবে না৷ এখন গ্লোবালাইজেশনের যুগ, অবাধ যাতায়াত দ্বারা এই অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের উন্নতি হবে, যেটা ইউরোপে দেখা যাচ্ছে৷'' এদিকে, সম্রাট চুক্তির পরিধি চীন পর্যন্ত বিস্তৃত করা পরামর্শ দিয়েছেন৷

সাইদ মাহদি অন্য দেশের সঙ্গে চুক্তি করার আগে নিজ দেশের সড়কগুলোর মানোন্নয়নের পরামর্শ দিয়েছেন যোগাযোগমন্ত্রীকে৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়, অন্য দেশের সাথে যোগাযোগ পরে করলেও চলবে৷ আল্লাহ্‌র দোহাই, সবার আগে দেশের মহাসড়কগুলো চার লেনের করে দিন আর দেশের মানুষকে দুর্ঘটনার মৃত্যুর মিছিল থেকে রেহাই দিন৷''

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়