1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

পরিত্যক্ত খনি যখন জ্বালানির উৎস

প্রাকৃতিক সম্পদ ফুরিয়ে গেলে খনি আর কাজে লাগে না৷ কিন্তু পরিত্যক্ত কয়লাখনিকে টেকসই জ্বালানির উৎস হিসেবে ব্যবহার করার অভিনব প্রক্রিয়া চলছে জার্মানিতে৷ এক মডেল প্রকল্প সফল হলে গরম পানি পাওয়া যাবে এই সব খনি থেকে৷

ভিডিও দেখুন 02:26

খনি থেকে গরম পানি

আগে ছিল কয়লাখনি৷ এখন এক বিদ্যুৎ কোম্পানি পরিত্যক্ত এই খনির সুড়ঙ্গ থেকে গরম পানি তোলে৷ খনি বন্ধ হওয়ার প্রায় ৪০ বছর পর সেই জায়গা যে আবার কাজে লাগানো যাচ্ছে, তাতে কোম্পানির মুখপাত্র অত্যন্ত খুশি৷ প্রায় ৬০০ মিটার গভীরে পানি জমে গরম হয়ে উঠেছে৷ ধস এড়াতে সেই পানি এমনিতেই পাম্প করে উপরে তুলতে হতো৷ সব পরিত্যক্ত খনিরই একই অবস্থা৷ আগামী কয়েক বছরে সে সব জায়গায় বিভিন্ন কোম্পানি জ্বালানির উৎস হিসেবে গরম পানি কাজে লাগাতে চায়৷ রোয়রকোলে কোম্পানির রিকার্ডা ড্যুগা বলেন, ‘‘এই প্রকল্পকে মডেল হিসেবে ধরে বাকি খনিগুলিতেও গরম পানি কাজে লাগানো যেতে পারে৷ কোম্পানির পক্ষ থেকে আমরা উত্তাপ সহ খনিগুলির সম্ভাবনা কাজে লাগাতে চাই৷''

কোম্পানি অবশ্যই ভূস্তরের নীচের উত্তাপ কাজে লাগাচ্ছে৷ খনির কাছের এক স্কুলের প্রধান এমন এক প্লান্ট বসিয়েছেন, যা দিয়ে শীতে গোটা স্কুলবাড়ি ও সুইমিং পুল গরম রাখা যায়৷ তখন থেকেই প্লান্টে পানি আসছে৷ মাথায় এই আইডিয়া আসার মাস ছয়েকের মধ্যেই প্লান্ট প্রস্তুত হয়ে গিয়েছিল৷

এই স্কুল ছাড়াও আরও অনেকে আগ্রহ দেখাচ্ছে৷ যেমন ছোট এই কারখানাও পরিত্যক্ত খনি থেকে গরম পানি পেতে চায়৷ পাশ দিয়েই পাইপ চলে গেছে৷ কারখানার প্রধান বহু বছর ধরেই সেই পাইপে ভাগ বসাতে চাইছেন৷ গরম পানি যে আর কাছের এক হ্রদে ফেলে দেওয়া হচ্ছে না, তাতেই তিনি খুশি৷ এখন তিনি সেই পানি পাবার আশা করছেন৷ শিল্পপতি হান্স পেটার কানিস বলেন, ‘‘প্রচলিত পদ্ধতিতে গ্যাস থেকে যে উত্তাপ পাওয়া যায়, সেই তুলনায় এর খরচ অবশ্যই অত্যন্ত কম৷ তাছাড়া পরিবেশ সংরক্ষণের ক্ষেত্রেও এটা একটা অবদান বটে৷ বছরের পর বছর ধরে তো এই জ্বালানি নষ্ট হচ্ছে৷''

অদূর ভবিষ্যতেই তাঁর আশা পূর্ণ হবে৷ আবেদনপত্র জমা পড়েছে৷ লাইনের সংযোগও সহজ প্রক্রিয়া৷ আগামী বছরগুলিতে টেকসই জ্বালানির উৎস হিসেবে একে একে পরিত্যক্ত খনিগুলির নবজন্ম ঘটবে বলে আশা করা হচ্ছে৷

বিশেষ ঘোষণা: এই সপ্তাহের অন্বেষণ কুইজে অংশ নিতে ক্লিক করুন এখানে

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়