1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালুর ঘোষণা দিলো ইরান

১৯৭৪ সালে পারমাণবিক প্রকল্পের কাজ শুরু করেছিল ইরান৷ এরপর এ নিয়ে অনেক কাহিনী, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অনেক নিন্দা এবং কড়া কথা৷ সবকিছুকে পিছনে ফেলে ঘোষণা দেয়া হলো বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করার৷

Iran, Bushehr, nuclear, power, plant, Tehran, পরমাণু, বিদ্যুৎ, কেন্দ্র, চালুর, ঘোষণা, ইরান

বুশেহর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র (ফাইল ছবি)

আজ শনিবার ইরান বলেছে যে, রুশ সহায়তায় তারা তাদের বুশেহরের প্রথম পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি চালাতে শুরু করেছে৷ ইরান এমন এক সময়ে এই কথা ঘোষণা করলো যার মাত্র এক সপ্তাহ পরই পরমাণু ইস্যুতে ইরানের সঙ্গে জেনেভায় আলোচনায় বসছে জাতিসংঘের স্থায়ী ৫ সদস্য ও জার্মানিকে নিয়ে গঠিত ছয় জাতি গ্রুপ৷ দুই পক্ষের মধ্যে মতের অমিলের কারণে ছয় জাতি গ্রুপের সঙ্গে ইরানের আলোচনা এক বছরের বেশি সময় ধরে অচল৷ গত বছরের অক্টোবরে শেষ দফা বৈঠক হয়েছিল৷

আজ পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালুর দিনক্ষণ না জানিয়ে ইরানের পরমাণু প্রধান আলি আকবর সালেহি বার্তা সংস্থা ফার্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, আমরা আশা করছি, বুশেহরের পরমাণু কেন্দ্রের বিদ্যুৎ আগামী এক বা দুই মাসের মধ্যেই জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা সম্ভব হবে৷

ইরান বারবারই বলে আসছে, তারা তাদের বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতেই বন্দর নগরী বুশেহরে রাশিয়ার সহায়তায় পরমাণু জ্বালানি নির্ভর বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মাণ করছে৷ অপরদিকে, পশ্চিমা শক্তিগুলো মনে করছে, পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আড়ালে আসলে ইরান পরমাণু বোমা বানাবার কাজই করছে৷ তবে এই কথাটির বরাবরই প্রতিবাদ করে আসছে ইরান৷ তাদের কথা, পরমাণুর ব্যবহার হচ্ছে শান্তিপূর্ণ কাজে৷

বার্তা সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স, ব্রিটেন এবং জার্মানিকে নিয়ে গড়া ছয় জাতি গ্রুপের সঙ্গে আগামী ৫ ডিসেম্বর যে আলোচনা শুরু হবার কথা ছিল, নতুন এই ঘোষণার কারণে সেটি শুরু হতে সমস্যা হতে পারে৷

ইরানের প্রতি বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলো বারবার ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধিকরণ বন্ধ করার আহ্বান জানালেও সে কথায় কর্ণপাত করেনি তারা৷ এরই মধ্যে গত দিন দুয়েক আগে ইরানের পরমাণু বিভাগের প্রধান সালেহি বলেছেন, ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ বন্ধ করবে না৷ এমনিতেই ইরানের উপর জাতিসংঘের বেশ কয়েক দফা অবরোধ বলবৎ৷ তারপর নতুন এই ঘোষণা, সবকিছু মিলিয়ে পরিস্থিতি কোন দিকে যায় সেটাই দেখবার বিষয়৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

নির্বাচিত প্রতিবেদন