1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

পঁচানব্বই বছরে জানালা দিয়ে ঝাঁপ দিলেন মনিচেলি

বিশ্বখ্যাত ইটালিয় চলচ্চিত্র পরিচালক মনিচেলি তাঁর শরীরে দুরারোগ্য ক্যানসারের যন্ত্রণা বোধহয় আর সহ্য করতে পারছিলেন না৷ তাই এই নামজাদা কমেডি ছবি নির্মাতা নিজের জীবন শেষ করে দিলেন হাসপাতালের জানলা দিয়ে ঝাঁপ দিয়ে৷

default

মারিও মনিচেলিকে বলা হয় ইটালীয় হাসির ছবির পিতা (ফাইল ফটো)

মারিও মনিচেলিকে বলা হয় ইটালীয় হাসির ছবির পিতা৷ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধোত্তর বিশ্বে চলচ্চিত্রের দুনিয়ায় আসেন মনিচেলি৷ সময়টা ১৯৪৯৷ ‘আমিচি মেই', ‘ই সোলিটি ইগনোটি'-র মত তাঁর বেশ কিছু ছবি মনে রাখার মত৷ স্যাটায়ার বা ব্যঙ্গের এক কৌণিক দৃষ্টিভঙ্গি ছিল মনিচেলির ছবির বিষয়৷ বিষয় তিনি তুলে নিতেন জীবন থেকেই৷ তাঁর কিছু ছবি গ্রেট ফিল্মের স্বীকৃতি পেয়েছে৷ সারা জীবনে অসংখ্য সম্মান পেয়েছেন৷ চারবার তাঁর তৈরি ছবি অস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছিল৷ সারাজীবনে ৭০ টি ছবি নির্দেশনা দিয়েছিলেন এই পরিচালক৷

প্রস্টেট গ্ল্যান্ডে শেষ পর্যায়ের ক্যানসারে ভুগছিলেন মনিচেলি৷ রোম শহরের সান জিয়োভানি হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয় কয়েকদিন আগে৷ মঙ্গলবার সেই হাসপাতালেরই পাঁচতলা থেকে তিনি ঝাঁপ দেন৷ অসুস্থ বৃদ্ধের মৃত্যু হয় প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই৷ একদা এই নামজাদা পরিচালক কমেডি বা ব্যঙ্গের ছবি প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘কমেডি অনেকসময়ই নাটকীয় হয়, কখনো বা ভীষণ দুঃখদায়কও হতে পারে৷ সেই যন্ত্রণাদায়ক কমেডিই হল ইটালীয় কমেডি৷ যা হাসায় আবার পাশপাশি বুকের গভীরে ব্যাথারও জন্ম দেয় একইসঙ্গে৷'

কমেডির জীবনের শেষ দৃশ্যটাকেও নাটকীয় করেই তাই বোধহয় বিদায় নিলেন মারিও মনিচেলি৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম