1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভারত

নেপালের অনন্য সেই নারীর সম্মানে আরেকটি পুরস্কার

শিক্ষকতা ছেড়ে গত ২৪ বছরে অন্তত ৫৭ হাজার নারীকে নতুন জীবন দিয়েছেন অনুরাধা কৈরালা৷ অনেক আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাওয়া নেপালের এই মহিয়সী নারীকে ভারতও এবার সম্মান জানাবে৷ ‘পদ্মশ্রী' পাবেন তিনি৷

ভারতে বেসামরিক নাগরিকদের জন্য অন্যতম সেরা পুরস্কার ‘পদ্মশ্রী'৷ এই পুরস্কার পাবেন জেনে অনুরাধা কৈরালা বেশ খুশি৷ ৬৭ বছর বয়সি সাবেক শিক্ষিকা বলেছেন, এ পুরস্কার তাঁর দায়িত্ব আরো বাড়িয়ে দেবে৷

১৯৯৩ সালে হঠাৎই শিক্ষকতা ছেড়ে দিয়েছিলেন ছোট-খাটো গড়নের অনুরাধা কৈরালা৷ চাকরি ছেড়ে বেছে নিয়েছিলেন অনিশ্চয়তায় ভরা এক জীবন৷ পাচারকারীরা যে চাকরির লোভ দেখিয়ে নেপাল, বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের নারী বা অবুঝ শিশু-কিশোরীদের নিয়ে নারকীয় কষ্টের মাঝে ফেলে দেয়, তা বন্ধ করার উদ্দেশ্যেই চাকরি ছেড়েছিলেন অনুরাধা৷ এমন কাজ, এমন কঠিন দায়িত্ব নিয়ে সহজে কেউ সফল হতে পারেন না৷ তিনিও হননি৷ তবে আজ ২৪ বছর পর তাঁর ঝুলিতে জমা হয়েছে অনেক অর্জন, অনেক প্রাপ্তি৷

শিক্ষকতা ছেড়ে অনুরাধা মানব পাচারবিরোধী দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘মাইতি নেপাল' প্রতিষ্ঠা করেছিলেন৷ নেপালি ভাষায় ‘মাইতি' মানে ‘মায়ের ঘর'৷ সেই ঘর দুই যুগে পাচারকারীদের কারণে বিপদগ্রস্ত একজন নারীকেও ফেরায়নি৷ কোনো নারীর বিপদ দেখলেই এগিয়ে গেছে ‘মাইতি'৷ পাচার হয়ে যাওয়া নারীদের উদ্ধার করেছে৷ পাচারের ঝুঁকির মুখ থেকেও ফিরিয়ে এনেছে অনেক নারীকে৷ পরিসংখ্যান বলছে, এ পর্যন্ত পাচারকারীরা যৌনকর্মী হতে বাধ্য করেছিল এমন অন্তত ১২ হাজার নারীকে উদ্ধার করে তাঁদের পূনর্বাসন করেছেন অনুরাধা৷ আরো অন্তত ৪৫ হাজার নারীকে পাচার হওয়া থেকে বাঁচিয়েছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

গত ২৪ বছরে অনুরাধা কৈরালার কাজের পরিসরও অনেক বেড়েছে৷ ‘মাইতি'-র বাইরেও গড়েছেন অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান৷ নেপাল-ভারত সীমান্তে গড়েছেন ১১টি ট্রানজিট হোম, পাচারকারীদের খপ্পর বা যৌনপল্লি থেকে উদ্ধারের পরও যেসব নারী মানসিক বিপর্যয় কাটিয়ে উঠতে পারেননি তাদের কল্যাণার্থে গড়েছেন তিনটি ‘প্রিভেনশন হোম'৷ এর বাইরে যৌনপল্লি ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফেরা নারীদের সন্তানদের জন্য গড়েছেন স্কুল৷ হাসপাতালও গড়েছেন দু'টি৷

নেপালে অনুরাধা কৈরালাকে এখন সবাই ‘দিজ্জু', অর্থাৎ ‘দিদি' বলে ডাকে৷ তার মানে এখন তিনি সবার বড় বোন৷

দেশে সবার কাছ থেকে এমন সম্মান অর্জন করা অনুরাধাকে এর আগে জাতিসংঘ পুরস্কৃত করেছে৷ সিএনএন-এর ‘হিরো'স অ্যাওয়ার্ড'-ও পেয়েছেন তিনি৷ এবার পাবেন বেসামরিক নাগরিকদের জন্য ভারতের অন্যতম সেরা পুরস্কার ‘পদ্মশ্রী'৷ আগামী মার্চ বা এপ্রিলে ভারতের প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জি অনুরাধা কৈরালার হাতে তুলে দেবেন এ পুরস্কার৷

এসিবি/ডিজি (টমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশন) 

বন্ধু, এ নিয়ে আপনার কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন