1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

নিয়ান্ডারথাল মানবরা শুধু মাংস নয়, সবজিও খেতো

হ্যাঁ, কথাটা সত্য৷ কারণ এর প্রমাণ পাওয়া গেছে পঞ্চাশ হাজার বছরের পুরনো মল বিশ্লেষণ করে৷ স্পেনের এল সল্ট সাইটে পাওয়া এই মলের গুঁড়ো বিশ্লেষণ করা হয় অ্যামেরিকার ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির ল্যাবরেটরিতে৷

নিয়ান্ডারথাল মানবের গু? তা নিয়ে যদি এমআইটি-র রসায়নবিদরা মাথা ঘামাতে পারেন, তাহলে আমাদের পাঠকদেরও নাকে কাপড় দেবার কোনো কারণ নেই৷ তাঁদের স্বস্তির জন্য এ-ও যোগ করা চলতে পারে যে, প্রস্তরযুগে বিলুপ্ত গুহমানবের মলও প্রস্তরীভূত অবস্থাতেই পাওয়া গিয়েছে৷ এবং সেই মল গবেষণাগারে বিশ্লেষণ করে যে ‘বায়োমার্কার'-গুলি পাওয়া গেছে, তার মধ্যে আছে কোপ্রোস্টানল নামের একটি লিপিড, যা পাকস্থলীতে কোলেস্টেরল মেটাবলাইজ করার সময় জন্ম নেয়৷

অপরদিকে গবেষকরা ফাইভ-বেটা-স্টিগমাস্টানল নামের একটি পদার্থের রেশ পেয়েছেন, যা উদ্ভিদ হজম করার সময় সৃষ্টি হয়৷ এ থেকে প্রমাণ হয় যে, নিয়ান্ডারথাল মানবরা প্রধানত মাংস খেলেও, কচু, কুল অথবা বাদাম খেতেও তাদের আপত্তি ছিল না৷

Museen in Deutschland Neanderthal Museum Mettmann Flash-Galerie

নিয়ান্ডারথালরা আজ থেকে আড়াই লাখ বছর আগে দেখা দেয় এবং তার পর প্রায় দু' লাখ দশ হাজার বছর ধরে তারা ইউরোপ ও এশিয়া জুড়ে বাস করেছে (প্রতীকী ছবি)

এই আবিষ্কারকে ঠিক নতুন বলা চলে না, কেননা নিয়ান্ডারথাল মানবের দাঁতের ফাঁকে যে খাবারের অবশিষ্ট পাওয়া গিয়েছে, তা বিশ্লেষণ করেও তাদের বাদাম এবং উদ্ভিদ খাবার হদিশ পাওয়া গিয়েছিল৷ কিন্তু যেহেতু নিয়ান্ডারথালরা তাদের দাঁতকে কাজের জন্যও ব্যবহার করতো – অর্থাৎ দাঁত দিয়ে শুধু খাওয়া নয়, এটা-সেটা চিবতো কিংবা কামড়ে ধরত, সেহেতু দাঁতের ফাঁকে পাওয়া মাইক্রোফসিলকে চূড়ান্ত প্রমাণ হিসেবে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়৷ এছাড়া নিয়ান্ডারথাল মানবদের দাঁতের ফোকরে উদ্ভিদের অবশিষ্ট তাদের শিকার করা অন্য কোনো তৃণভোজী জীব থেকেও এসে থাকতে পারে৷

কাজেই স্পেনের লা সল্ট সাইটে পাওয়া আনুমানিক পঞ্চাশ হাজার বছরের পুরনো পাঁচটি প্রস্তরীভূত মলের স্তূপ যে ইঙ্গিত দিচ্ছে, তা জুরাসিক পার্কের মতোই অকাট্য৷ দৃশ্যত হোমো সেপিয়েন্সদের এই নিকটাত্মীয় নানা ধরনের খাবার খেতো৷ আজ থেকে ৩৫ হাজার বছর আগে তারা লুপ্ত হয়৷ তারাই ছিল ইউরোপের আদি বাসিন্দা, কিন্তু হোমো সেপিয়েন্সরা আফ্রিকা থেকে ইউরোপে ঢোকার পর নিয়ান্ডারথালরা ধীরে ধীরে লুপ্ত হয়৷

নিয়ান্ডারথালরা আজ থেকে আড়াই লাখ বছর আগে দেখা দেয় এবং তার পর প্রায় দু' লাখ দশ হাজার বছর ধরে তারা ইউরোপ ও এশিয়া জুড়ে বাস করেছে, শেষমেষ হোমো সেপিয়েন্স, অর্থাৎ আমাদের পূর্বপুরুষদের সঙ্গে মিশে গিয়ে মানব ইতিহাসের মঞ্চ থেকে বিদায় নিয়েছে৷ তবে তাদের সেই সবজি খাওয়ার অভ্যাসটা আমাদের আজও কাজে দিচ্ছে, কি বলেন?

এসি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন