1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

নিয়ম না মানলে রেস্তোরাঁ মালিকের জেল-জরিমানা

‘হোম মেড’ লেবেল থাকলে রেস্তোরাঁর রান্নাঘরে তাজা উপাদান ব্যবহার করতে হবে, জমাট ‘প্রি কুকড’ মালমশলা ব্যবহার করলে মালিকের জেল ও জরিমানা হতে পারে৷ ফ্রান্সে এবার নতুন এই নিয়ম চালু হলো৷

ভাষা ও খাবারের ব্যাপারে ভীষণ খুঁতখুঁতে ফরাসিরা৷ খাবার রন্ধন এবং পরিবেশনের বিশেষত্বের কারণে ২০১০ সালে ইউনেস্কোর বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পায় ফরাসি খাবার ও পানীয়৷ সে দেশে নতুন কোনো রেসিপির বই বা ফুড গাইড বের হলেই মিডিয়াতে হৈচৈ পড়ে যায়৷ ফরাসি খাবার ও পানীয় তৈরির কায়দা এবং পরিবেশনের সুনাম বিশ্বজোড়া৷ খাবারের সাথে কী ভাবে ওয়াইন বা মদ পরিবেশন করা হবে, কী ভাবে টেবিল সাজানো হবে, এ সব দিকে তাদের রয়েছে সুতীক্ষ্ণ নজর৷

এবার নজর পড়ছে রেস্তোরাঁর খাবারের দিকে৷ মানুষ পকেটের পয়সা খরচ করে বাইরে খেতে যায়৷ রেস্তোরাঁর রান্নাঘরে কী ঘটছে, তা তারা জানতে পারে না৷ প্যাকেটজাত ফ্রোজেন খাবার মাইক্রোওয়েভে গরম করে গ্রাহকদের খেতে দিলেও নয়৷ ফরাসিরা এমন খাবার খেতে মোটেই পছন্দ করেন না৷

অথচ প্রায় দেড় লাখ রেস্তোরাঁয় একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, প্রায় এক-তৃতীয়াংশ রেস্তোরাঁই তাজা শাক-সবজি বা মাছ-মাংসের বদলে প্রায়ই আগে থেকে প্রস্তুত করা উপাদান ব্যবহার করে৷ অনেকে মনে করে, এই সংখ্যা বাস্তবে প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ৷

ফরাসিদের জন্য তাই কর্তৃপক্ষ এবার এনেছে ‘হোম মেড' লেবেল৷ অর্থাৎ যে রেস্তোরাঁর এই লেবেল থাকবে, সেখানে নিশ্চিতভাবে বলা যাবে যে শেফ বা তাঁর সহকারীরা শাক সবজি ধোয়া, কাটা, মসলা বাছা থেকে রান্না পর্যন্ত সব কাজ করে থাকেন৷ ‘সেমি-কুকড' উপাদানের কোনো জায়গা নেই৷

‘হোম মেড' লেবেল সত্ত্বেও কেউ যদি নিয়ম না মানে, তাহলে শাস্তির মাত্রাও কম নয়৷ ধরা পড়লে রেস্তোরাঁ মালিককে দুই বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে নয়ত ৩ লাখ ইউরো জরিমানা দিতে হবে৷

কড়া এই নিয়মের সুবিধাও রয়েছে৷ যে সব রেস্তোরাঁ উচ্চ মানের খাবারের বিজ্ঞাপন করতে চায়, তারা ‘হোম মেড' লেবেল দেখিয়ে সহজেই মানুষের আস্থা অর্জন করতে পারবে৷ তবে শুধু নিয়ম চালু করেই সমস্যার সমাধান করা যাবে না বলে কিছু বিশেষজ্ঞ মনে করছেন৷ রেস্তোরাঁ-মালিকরা নিয়মের ফাঁক-ফোকর ঠিকই খুঁজে নেবেন বলে তাঁদের ধারণা৷

তবে, আলুর চিপস, সসেজ এগুলো ফ্রোজেন হলে হোমমেড লেবেলের আওতায় পড়বে না৷ পাউরুটি, পাস্তা, পনির এবং মদ বা পানীয় বাইরে থেকে সংগ্রহ করার অনুমতি আছে৷

এপিবি/এসবি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন